কুর্সিতে বসার মাসখানেকের মধ্যেই বিতর্কে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিজ স্ট্রাস  

কুর্সিতে বসার মাসখানেকের মধ্যেই বিতর্কে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিজ স্ট্রাস   
03 Oct 2022, 08:15 PM

কুর্সিতে বসার মাসখানেকের মধ্যেই বিতর্কে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী লিজ স্ট্রাস

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: গ্রেট ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসার পর একমাসও কাটল না। আর্থিক বিল নিয়ে বিতর্কে দেশের নয়া প্রধানমন্ত্রী  লিজ স্ট্রাস। নির্বাচনী প্রচারে তাঁর প্রতিশ্রুতি ছিল সাধারণ মানুষের উপর থেকে করের বোঝা কমাবেন। সেই লক্ষ্যেই দেশের সর্বোচ্চ করদাতাদের উপর থেকে করের পরিমাণ ৪৫ শতাংশ কমিয়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন লিজ।কিন্তু মাত্র দশ দিনের মধ্যে সেই সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হঠল ব্রিটিশ সরকার। সোমবার ব্রিটেনের অর্থমন্ত্রী কোয়াসি কোয়ার্তেং এক টুইটে  জানান, ব্রিটিশ বাণিজ্যের উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে নিম্নবিত্তদের উপর থেকে করের বোঝা কমানো, আমাদের আর্থিক নীতির জন্য দুটোই সমান গুরুত্বপূর্ণ। আপাতত দেশের অর্থনীতিকে আরও শক্তিশালী করে তুলতে নতুন ভাবে পরিকল্পনা শুরু হচ্ছে।

কর ছাড়ের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের সামনে যে চ্যালেঞ্জ রয়েছে, তার মোকাবিলা করতে হবে। সেই জন্যই করছাড়ের সিদ্ধান্ত আপাতত প্রত্যাহার করা হল।গ্রেট ব্রিটেনের সর্বোচ্চ আয়ের নাগরিকদের যে পরিমাণ কর দিতে হত, তার ৪৫ শতাংশ কমিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। আর তারপরই আন্তর্জাতিক বাজারে কমে যায় ব্রিটিশ পাউন্ডের দাম। ফলে সরকারের আর্থিক নীতি নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়। শাসক কনজারভেটিভ পার্টির অন্দরেই এ নিয়ে তর্ক, বিতর্ক শুরু হয়ে যায়। প্রধানমন্ত্রীর নীতির সমালোচনা করেন দলের নেতারা। বিশেষত, ঋষি সুনকপন্থীরা সরকারের কড়া সমালোচনা শুরু করেন।  এই পরিস্থিতিতে বেগতিক দেখে শেষ পর্যন্ত পিছিয়ে এল লিজ স্ট্রাসের সরকার।

Mailing List