মেয়ে কেন প্রেম করবে না? বিয়ে করবে না? রাস্তা থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়ার মাকেই তুলে নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারধর মালদায়

মেয়ে কেন প্রেম করবে না? বিয়ে করবে না? রাস্তা থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়ার মাকেই তুলে নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারধর মালদায়
23 May 2022, 07:45 PM

মেয়ে কেন প্রেম করবে না? বিয়ে করবে না? রাস্তা থেকে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়ার মাকেই তুলে নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারধর মালদায়

 

নারায়ণ সরকার, মালদা

  

মেয়ে কেন ভালোবাসবে না। কেন বিয়ে করবে না? তাই এবার কলেজ পড়ুয়া মেয়ের মাকেই রাস্তা থেকে জোর করে নিয়ে তুলে যাওয়ার অভিযোগ উঠলো। মাকে তুলে নিয়ে গিয়ে ব্যাপক মারধরের অভিযোগও ওঠে। জখম মা এখন মালদা মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি। ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

সোমবার চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার ইংরেজ বাজার থানার উত্তর রামচন্দ্রপুর এলাকায়। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ইংরেজ বাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন জখম ব্যক্তির স্বামী ও মেয়ে।

 

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, উত্তর রামচন্দ্রপুরের বাসিন্দা মালদার আইএমপিএস কলেজের ইঞ্জিনিয়ারিং এর ছাত্রী। বিগত দেড় বছর আগে ওই এলাকারই রতন কর্মকারের ছেলে ভিকি কর্মকার তাঁকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ুয়া ছাত্রী। তা নিয়ে আগেও দুই পরিবারের মধ্যে একটি গন্ডোগোল হয়েছিল। তবে বেশ কিছুদিন হল সব কিছু চুপচাপ ছিল। অভিযোগ, তার জেরেই এবার এমন ঘটনা ঘটল। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রত্যেক দিনের মতো সকাল বেলায় মর্নিং ওয়ার্ক করতে যান ওই কলেজ ছাত্রীর মা। সেই সময় তাঁকে একা পেয়ে অভিযুক্তরা রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ। আহত ওই কলেজ ছাত্রীর মা কে তড়িঘড়ি উদ্ধার করে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছেন ওই কলেজ ছাত্রীর মা।

কলেজ ছাত্রী জানান, যে বিগত প্রায় দেড় বছর আগে ভিকি কর্মকার নামে ওই যুবক তাঁকে কলেজ যাওয়ার পথে ইভটিজিং করতো এবং প্রেমের প্রস্তাব দিয়েছিল। সেই প্রমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ায় এই নিয়ে সেই সময় তাদের দুই পরিবারের মধ্যে গণ্ডগোল হয়। তারপর থেকেই তাদের ওপর হুমকি আসত যে তাদের দেখে নেবে। ছাত্রীর দাবি, ‘‘হয়তো আগে তেমন সূযোগ পায়নি। আমাকেও একা পাইনি। মা সকালে মর্নিং ওয়াক করতে গেলে তাই মাকে তুলে নিয়ে যায়। বেধড়ক মারধর করে অভিযুক্তরা।’’ এই ঘটনার পর থেকেই তাঁরা এখন রীতিমত আতঙ্কে রয়েছেন এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। প্রশাসনের কাছে আর্জি জানিয়েছেন যেন দ্রুত তাড়াতাড়ি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে ইংরেজ বাজার থানার পুলিশ।

 

ads

Mailing List