দিনের বেলার অনুষ্ঠানে নজর কাড়ুন একরঙা ঢাকাইয়ে

দিনের বেলার অনুষ্ঠানে নজর কাড়ুন একরঙা ঢাকাইয়ে
14 Jan 2021, 06:13 PM

দিনের বেলার অনুষ্ঠানে নজর কাড়ুন একরঙা ঢাকাইয়ে

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: পরনে ঢাকাই শাড়ি, কপালে সিঁদুর আর চোখে গাঢ় কাজল- বাঙালি বধূর সাজ বোঝাতে এর থেকে সহজ উদাহরণ হতেই পারে না। ঢাকাই শাড়ি বাঙালির ঐতিহ্য আজও বহন করে চলেছে। শুধু বিবাহিত মেয়েরা নয়, অবিবাহিত মেয়েরাও এই শাড়ি পরে থাকে। আর ঢাকাই শাড়িতে বাঙালিআনা যেমন ফুটে ওঠে, তেমনই ফ্যাশনও করা সম্ভব এই শাড়িতে। শুধু বৈচিত্র আনতে হবে ব্লাউজে। শুধু অনুষ্ঠান বুঝে পরলেই হল। দিনের বেলার যেকোনও অনুষ্ঠানে ঢাকাই পরতে পারেন। সে কোনও পারিবারিক অনুষ্ঠানই হোক, বা বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডা। রইল চারটি একরঙা ঢাকাইয়ের হদিশ।

সাদা ঢাকাই- সাদা রংটি হচ্ছে একেবারে স্নিগ্ধ , আর চোখের আরাম একটি রঙ। যেকোনো বয়সের জন্য আনবিটেবেল একটি রঙ সাদা। সাদা রঙের শাড়ি এতই অতুলনীয় এটি যেকোনো ব্লাউজ দিয়ে যেকোনো কনট্রাস্ট এ পরতে পারবেন, একই শাড়িকে ভিন্ন ভিন্ন অকেশনে বিভিন্ন ভাবে পরতে পারবেন। এর সঙ্গে অক্সিডাইজ বা সিলভার জুয়েলারি পরুন।

নীল ঢাকাই- নীল শাড়ি সব বয়সে পরা যায়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে একরঙা নীল ঢাকাইয়ে সোনালী রঙের সুতোর কাজ থাকে। যা শাড়িকে আরও গর্জিয়াস করে তোলে। দিনের বেলার অনুষ্ঠান বাড়ি এমনকী সন্ধ্যের জন্মদিন পার্টিতেও নীল ঢাকাই পরে যেতে পারেন। এর সঙ্গে স্লিভলেস নীর রঙের হাইনেক ব্লাউজ পেছে নিন। এরসঙ্গে সোনালি গয়না পরতে পারেন। তা না হলে, নীল রঙের জেমস্টোনের জুয়েলারি পরতে পারেন।

হলুদ ঢাকাই- বাসন্তী রঙা হলুদ ঢাকাই যে অনুষ্ঠানেই বদলে দেবে আপনার সাজ। এর সঙ্গে পরুন হলুদ স্লিভলেস ব্লাউজ। এর সঙ্গে জেমস্টোনের হয়না পরতে পারেন। তা না হলে সোনার গয়না বেছে নিন। চাইলে হলুদ ঢাকাইয়ের সঙ্গে সাদা, সবুজ, মেরুন ব্লাউজও পরতে পারেন।

কালো ঢাকাই-

কালো রং খুব আভিজাত্যিক আর সবচেয়ে গর্জিয়াস রং হিসেবে ধরে নেওয়া হয়। যেকোনো অনুষ্ঠান বা পার্টিতে যেতে কালো ঢকাই পরতে পারেন। এই কালো শাড়িও যেকোনো ব্লাউজ দিয়ে যেকোনো ভাবে পরে ফেলা যায়। তবে, সব থেকে ভালো হয় সাদা বোট নেট ব্লাউজ পরুন।

Mailing List