সরকারের আয় বৃদ্ধি করতে প্রায় ১ কোটি চন্দন গাছ চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বন দফতরের তরফে!

সরকারের আয় বৃদ্ধি করতে প্রায় ১ কোটি চন্দন গাছ চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বন দফতরের তরফে!
17 Nov 2022, 08:06 PM

সরকারের আয় বৃদ্ধি করতে প্রায় ১ কোটি চন্দন গাছ চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বন দফতরের তরফে!

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: রাজ্যে এ বার চন্দন গাছ চাষের ভাবনা বন দফতরের। বন দফতরের তরফে এবার বনাঞ্চল থেকে রাজ্য সরকারের আয় বৃদ্ধি করতে প্রায় ১ কোটি চন্দন গাছ চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সরকারি আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে আগামী বছরের প্রথমার্ধেই দফায় দফায় এই উদ্যোগের বাস্তবায়ন শুরু করা হবে। জানুয়ারি মাস থেকেই এই উদ্যোগ চারাগাছ বিতরণের প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে জানা গেছে বন দফতর সূত্রে।

বন দফতরের সঙ্গে সমন্বয় রেখে কাজ করা স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলিকে এই চন্দন গাছ চাষের ক্ষেত্রে আগ্রহ যোগাবে সরকার। লাল চন্দন এবং শ্বেত চন্দন উভয় চারাই আনা হবে বলে খবর বন দফতর সূত্রে। চন্দন গাছ চাষের জন্য কোনও বিশেষ ধরনের মাটির প্রয়োজন হয় না। চন্দন গাছ যে কোনও রকম মাটিতেই বেড়ে উঠতে পারে। তবে অত্যধিক গরমে চন্দন গাছ চাষ সেভাবে করা হয় না।

রাজ্যের কোন অংশের মাটি এবং জলবায়ু চন্দন গাছের জন্য সবথেকে উত্‍কৃষ্ট হবে তার জন্য ইতিমধ্যেই বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলাপ আলোচনাও সেরেছে রাজ্যের বন দফতর। রাজ্য বনদফতরের উপার্জনের একটা বড় অংশ পশ্চিমের জেলাগুলির শাল সেগুন মেহগনি মত দামি কাঠের গাছগুলি থেকে হয়।

চন্দন সেই তালিকায় সংযুক্ত হলে, আয়ের পরিমাণ আরও অনেকটাই বাড়বে বলে মনে করছেন বন দফতরের আধিকারিকরা। আগামী বছরের মাঝামাঝি সময়ে বন মহোত্‍সবের মরশুমে অন্যান্য গাছের সঙ্গে চন্দনের চারা বিতরণের ভাবনাও রয়েছে রাজ্য বন দফতরের।

Mailing List