দলে ঢুকেছে টিএমসির দালাল, বোমা ফাটালেন বিজেপি সাংসদ

দলে ঢুকেছে টিএমসির দালাল, বোমা ফাটালেন বিজেপি সাংসদ
04 Jun 2022, 09:05 PM

দলে ঢুকেছে টিএমসির দালাল, বোমা ফাটালেন বিজেপি সাংসদ

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: বঙ্গ বিজেপির অন্দরে ঢুকে পড়েছে শাসক দল তৃণমূলের দালাল। আর তার জেরেই এ রাজ্যে দলের ভাবমূর্তি খারাপ হচ্ছে। শনিবার এমনই দাবি করলেন রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার। সাংসদের এই দাবি ঘিরে এখন বিজেপির অন্দরে আলোচনা তুঙ্গে উঠেছে।

তবে সাংসদের এই মন্তব্যের পর এখনও দলের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। তবে সাম্প্রতিক কালে প্রকাশ্যে দল বিরোধী কথা বলা এ রাজ্যের বিজেপি নেতাদের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। এর জেরে ক’দিন আগে বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে রীতিমতো চিঠি দিয়ে সেন্সর করেছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব৷ মজার কথা তারপরও দিলীপ আছেন স্বমহিমায়।

শুধু তিনিই নন, একুশের ভোটের পর দলের একের পর এক নেতার মন্তব্য অস্বস্তিতে ফেলেছে রাজ্য বিজেপিকে। একুশের নির্বাচনে অমিত শাহদের ফোলানো বেলুন চুপসে গিয়েছিল। ফলাফল প্রকাশের পর দলে দলে নেতা-কর্মীরা বিজেপি ছেড়ে ঘাসফুলে নাম লেখাচ্ছেন। ভোটের আগে যারা তৃণমূল থেকে গিয়েছিলেন বিজেপিতে তাঁরাই এখন কোণঠাসা। অনেককেই আবার ফিরিয়ে নিয়েছে তৃণমূল। অনেকে এখনও রয়েছেন। তাঁদের সঙ্গে আদি বিজেপির লড়াই তুঙ্গে। এই পরিস্থিতিতে বিজেপি সাংসদের মন্তব্য নিয়ে দলের অন্দরে এখন তুমুল আলোচনা চলছে।

রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ বলেন, এটা দলের অনুশাসনের ঘাটতির কারণে হচ্ছে। এটা যারাই করছে তাঁরা সবাই আসলে তৃণমূলের দালাল বা চর। তাঁরা বিজেপিকে শেষ করতে চায়। জগন্নাথ সরকারের মতে, বিজেপিতে থেকেও যদি কেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় দল বিরোধী কোনও পোস্ট করেন, তাহলে নিশ্চিত ভাবেই বলা যায় তিনি বঙ্গ বিজেপির ভালো চায় না। তাঁরা তৃণমূলের দালাল। সেই ধরনের লোকদের অবিলম্বে দল থেকে বহিষ্কার করা উচিত পাশাপাশি দলবিরোধী কাজ করলে তাঁদের কড়া শাস্তি দেওয়ার কথা বলেন বিজেপি সাংসদ। এটা যতক্ষণ না করা হবে দলের কোনও উন্নতি হবে না বলেই দাবি করেছেন তিনি। জগন্নাথের এই মন্তব্য স্বভাবতই ফের নতুন করে অস্বস্তিতে বিজেপির রাজ্য নেতৃত্ব। জগন্নাথ সরকার কারও নাম না বলায় তিনি ঠিক কাদের নিশানা করেছেন স্পষ্ট নয়। এমনিতেই আদি ও নব্য এই দুই বিজেপির দ্বন্দ্ব বারবার প্রকাশ্যে এসেছে।

ads

Mailing List