শ্যামল চক্রবর্ত্তীর তিনটি কবিতা

শ্যামল চক্রবর্ত্তীর তিনটি কবিতা
26 Jun 2022, 04:58 PM

শ্যামল চক্রবর্ত্তীর তিনটি কবিতা

 

তোর ভরসায় জগত পেয়েছে শিল্পী

     

মোনালিসা এঁকেছিল লিওনার্দো দা ভিঞ্চি।
বেঁধে রাখিস কেন তোর মধুমাখা দেহটা?
বেয়ারা ছেলেপুলে ধরে যদি বায়না।
নিরাপদে করো স্নান খুলে দিয়ে অঙ্কুশ।
আনমনে করে স্নান নাচে তারা মনোরম।
তুই শুধু বলে গেলি চাঁদ আর সুখটা ,
বালিশের পাশে তুই রেখে দিস ঠিকঠাক।
মনে আছে আশা তোর আঁধার আর সুখটা?
দেখা গেল কুচকুচে কালো রঙ আঁধারে।
ধুয়ে গেছে শিশিরের উদাসীন দেহটা।
ফুলকিতে ঘটে গেল মহা এক বিপ্লব।
রসায়নে বোঝা যায় দেহটার পরিচয়।
জেগে আছে কোনারক  যায় দেখা খাজুরাহো।
যুগলের বেফাঁসে এঁকেছে পিকাসোর ছবিতে।
জাদু আছে পরশের অজন্তা ইলোরায়।
কুঞ্চিত আছে তার ফুল দুই গোলাপ ই।
এই জগতে পেয়েছে নামিদামি শিল্পী।
অবদান আছে তোর সোনামাখা দেহতে।

...............

 

একি ভালবাসা

 

 

বাতায়নে বসে  আনমনে একা এক

 চলে গেল কি যেন  ধুকপুক করে  হিয়া।   প্রেমেরি ঘনঘটা   ছেয়ে  গেল সারাবেলা।

শুরু হতো ঝড় মনে  প্রাণ  করে উতলা।এইভাবে  কেটে গেল  প্রেম প্রেম ও বেলা।

মন ভাবে পাখি হয়ে উড়ে যাব ভোরবেলা।কুহু কুহু ডেকে প্রিয়ার ঘুম  ভেঙে করবে খেলা।

জানিনা মন পাখি খোঁজে তারে দিবা রাতি।মায়া  আর প্রেমেরি খেলা চলে  দিন কতক ।পাওয়া আর না পাওয়ার  মন করে ক্রন্দন।এইভাবে কতো যুগ পাব  ওগো প্রিয়া কে। কোলে বসে কেটে যাবে কতো যুগ এভাবে ।পার হবো  মাঠঘাট   যাব উড়ে সেই দেশে ,তুমি  প্রিয়া  আমি, রবো শুধু ভালোবেসে ।তুমি যদি চাও হিয়া  দেব খুলে হাতে করে।এইভাবে  করে  গেছো মন চুরি  প্রিয় টার।যুগে যুগে লেখা শুধু দেখে এসো মমতাজ মহলে,

খাজুরাহো ইলোরাতে  খোদাই করা দেওয়ালে।

.....................

 

 

এসেছি ঘুমের--দেশে, তোমারি-স্বপনে

 

এসেছি ঘুমের-- দেশে, তোমারি---স্বপনে।

   কনক চাপার বনে, চুমিলে বদনখানি।

মনোরম দেহখানি শিহরণ জাগে তাই।

  তোমারি আবেশে লাগে নীপসম যেন।

ঝুন ঝুন ঝুন ঝুন ঝুন ঝুন বাজে শিঞ্জিনী। 

 

ঘটিলো ব্যাঘাত  তোমারি স্বপনখানি।

যাও  নিয়ে ফুটন্ত গোলাপু হৃদয়ে মমো।

 হায় হায় গেলে ভুলে শুকাইলো সেতো।

দুঃখ বিভোরে মরে তোমার স্মৃতি টুকু।

প্রিয়তমা প্রিয়তমা মনে রেখো কিছু।

.........................

ads

Mailing List