খড়দহে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু একই পরিবারের তিনজনের

খড়দহে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু একই পরিবারের তিনজনের
21 Sep 2021, 07:18 PM

খড়দহে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু একই পরিবারের তিনজনের

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন : মর্মান্তিক। এ ছাড়া আর কিছু বলা যায় না এই ঘটনাকে। বেঁচে গেল মাত্র  চার বছরের ছেলে। আর বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল একই পরিবারের তিনজনের। মঙ্গলবার এই দুর্ঘটনা ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার খড়দার সরকারি পাতুলিয়ায় আবাসনে।  ঘরের মধ্যে জমা জলে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছে তিনজনের। 


জানা গিয়েছে, মোবাইল ফোনে চার্জ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন গৃহকর্তা। স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন স্ত্রী। তার মাকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হল বড় ছেলে। পরিবারে একমাত্র বেঁচে ৪ বছরের ছোট ছেলে। 

এদিন এই দুর্ঘটনায়  মৃত্যু হয়েছে বাবা-মা ও তাঁদের দশ বছরের সন্তানের। মৃতদের নাম রাজা দাস, পৌলমী দাস এবং শুভ দাস।

স্থানীয়দের দাবি, ঘরে জল জমে ছিল। মোবাইল ফোনে চার্জ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন গৃহকর্তা। স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন স্ত্রীও। বাবা-মাকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় দশ বছরের বড় ছেলেও।

গুরুতর আহত অবস্থায় তাঁদের বলরাম সেবামন্দির স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। 


টিটাগড়ে আবার দিদিকে টিউশনে পৌঁছে দিয়ে ফেরার পথে, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছে, বছর চোদ্দর কিশোরের।  জলে ডোবা রাস্তায়, বিদ্যুতের তার পড়ে আছে, তা ঠাউর করতে পারেনি মৃত কিশোর। এই মর্মান্তিক ঘটনার জন্য বিদ্যুৎ দফতরের পাশাপাশি স্থানীয় মৎস্যজীবীদের দায়ী করছেন স্থানীয়রা।


অন্যদিকে, পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরে ইটাবেড়িয়া এলাকাতে নৌকো করে ত্রাণ নিয়ে যাওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল ২ জনের। গুরুতর জখম হয়েছেন আরও ৩ জন। তাঁদের পূর্ব মেদিনীপুর জেলা হাসপতালে ভর্তি করা হয়েছে।  

পূর্ব মেদিনীপুরের জেলাশাসক জানিয়েছেন, দুর্যোগের সময় বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ থাকার কথা। কীকরে তা চালু ছিল, খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মৃতদের সরকারি নিয়ম মেনে আর্থিক সাহায্য করা হবে।

 

ads

Mailing List