যোগান রয়েছে সারের, তবু কেন সঙ্কট! আলু চাষের মরশুমে কড়া পদক্ষেপ ন‌িতে বৈঠক নবান্নে

যোগান রয়েছে সারের, তবু কেন সঙ্কট! আলু চাষের মরশুমে কড়া পদক্ষেপ ন‌িতে বৈঠক নবান্নে
09 Nov 2022, 08:20 PM

যোগান রয়েছে সারের, তবু কেন সঙ্কট! আলু চাষের মরশুমে কড়া পদক্ষেপ ন‌িতে বৈঠক নবান্নে

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: আলু চাষের আগে রাজ্যে কৃত্রিম সার সঙ্কট তৈরি আটকাতে উদ্যোগী হলো রাজ্য সরকার। জেলায় কৃষি আধিকারিকদের এই বিষয়ে লাগাতার নজরদারি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বুধবার নবান্নে কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় এবং দপ্তরের সচিব ওঙ্কার সিং মিনা সমস্ত জেলার কৃষি অধিকর্তাদের নিয়ে বৈঠকে বসেছিলেন। বৈঠকে পর্যালোচনা করে দেখা যায় রাজ্যে পর্যাপ্ত সারের যোগান রয়েছে। তাই কৃষি অধিকর্তাদের মন্ত্রীর নির্দেশ কোনোভাবেই ডিলাররা যেন কৃত্রিম ভাবে সারের সঙ্কট তৈরি করতে না পারে। ইতিমধ্যে কয়েকটি জেলা থেকে তথ্য এসেছে বেশি মুনাফার লোভে কেউ কেউ সার মজুদ করে রেখে বাজারে সঙ্কট  তৈরি করার চেষ্টা করছে।যারা এটা করবেন তাদের বিরুদ্ধে বাব্যাস্থা নেওয়া হবে বলে মন্ত্রী স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। মন্ত্রী বলেন, কৃষকরা ভালো করে চাষ করতে পারলে ফসল ভালো হবে। বাজারে সেই ফসল যোগান ঠিক থাকবে। দাম ও কম হবে।

 

পোখরাজ জাতের আলু চাষের জমি তৈরি করছেন চাষিরা। আমন ধান ওঠা শুরু করলেই জ্যোতি আলুর চাষের জমি তৈরি শুরু হবে। জমি তৈরিতে প্রয়োজন ‘সুষম’ সারের। সে কারণে নাইট্রোজেন, পটাশ ও ফসফেট সারের সংমিশ্রণে তৈরি (১০:২৬:২৬) সারের খোঁজে দোকানে যাচ্ছেন চাষিরা। কিন্তু তাঁদের দাবি, ওই সারের সরবরাহ অপ্রতুল। বিকল্প সার ব্যবহার করলে খরচ বাড়বে।ব্যবসায়ীদের দাবি, গত বছর থেকেই সারের সঙ্কট চলছে। এ বছর জেলায় ওই সারের বিশেষ জোগান আসেনি এখনও। বিভিন্ন সার প্রস্তুতকারী সংস্থার দাবি, ১০:২৬:২৬ সারের ৫০ কেজির বস্তার সরকার নির্ধারিত দাম ১৪৭০ টাকা। কিন্তু বেড়েছে উৎপাদন খরচ। আন্তর্জাতিক বাজারে ফসফেটের দাম বাড়ছে। নিকট ভবিষ্যতে তা কমার সম্ভাবনা কম। সে কারণে ওই সারের উৎপাদন কমিয়ে দিয়েছে প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলি। ফলে, বাজারে তৈরি হয়েছে ‘সঙ্কট’।

Mailing List