আদালতের রায় শুনেই কান্নায় ভেঙে পড়লেন ঝালদার মৃত কাউন্সিলর তপন কান্দুর স্ত্রী, তদন্তে এবার সিবিআই

আদালতের রায় শুনেই কান্নায় ভেঙে পড়লেন ঝালদার মৃত কাউন্সিলর তপন কান্দুর স্ত্রী, তদন্তে এবার সিবিআই
04 Apr 2022, 04:45 PM

আদালতের রায় শুনেই কান্নায় ভেঙে পড়লেন ঝালদার মৃত কাউন্সিলর তপন কান্দুর স্ত্রী, তদন্তে এবার সিবিআই

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: ঝালদার খুন হওয়া কাউন্সিলর তপন কান্দুর স্ত্রী সিবিআই তদন্ত চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছিলেন। আজ, সোমবার হাইকোর্ট সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল। শুধু সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল তা নয়, ৪৫ দিনের মধ্যে তদন্ত শেষ করারও নির্দেশ দিয়েছে। এদিন এই রায় দেন বিচারপতি রাজাশেখর মান্থার একক বেঞ্চ।  

ঝালদার নব নির্বাচিত কাউন্সিলরকে গুলি করে খুনের অভিযোগ ওঠে। খুনের পরেই থানার আইসি-র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তোলেন নিহত তপন কান্দুর স্ত্রী পূর্ণিমা কান্দু। তিন‌ি প্রথম থেকে দাবি জানিয়ে আসছিলেন, পুলিশ তদন্ত করলে সঠিক তথ্য উঠে আসবে না। কারণ, ঘটনায় পুলিশই জড়িত। তাই সিবিআই তদন্তের দাবি জানান তিনি। হাইকোর্টও জানায়, মানুষের মনে আস্থা ফেরাতেই এই নির্দেশ দেওয়া হল। আর সেই নির্দেশ শুনে আবেগে কেঁদে ফেললেন পূর্ণিমা।

আইসির বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তিনি নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের হয়ে কাজ করছেন। তবে আদালতের পর্যবেক্ষণ, খুনের তদন্তে পুলিশ চেষ্টা করলেও অনেক খামতি রয়েছে। আদালত বলেছে, তদন্ত শেষ হওয়ার আগেই পুলিশ সুপার এস সেলভামুরুগন আইসিকে ক্লিন চিট দিচ্ছেন। এর আগে এই খুনের তদন্ত করছিল সিট। তাদের সমস্ত নথি সিবিআইকে হস্তান্তরের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এবার তিনি আশা করছেন, সঠিক তদ‌ন্ত হবে। তিনি বিচার পাবেন।

১৩ মার্চ ঝালদার গোকুলনগরে খুন হন নব নির্বাচিত কংগ্রেস কাউন্সিলর তপন কান্দু। ঘটনার পর তাঁর ভাইপো দীপক কান্দু এবং দাদা নরেন কান্দুকে গ্রেফতারও করে পুলিশ।

Mailing List