বর্ধমানে নতুন কয়লা খনি প্রকল্প, ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে, দাবি রাজ্যের

বর্ধমানে নতুন কয়লা খনি প্রকল্প, ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে, দাবি রাজ্যের
02 Jul 2022, 01:00 PM

বর্ধমানে নতুন কয়লা খনি প্রকল্প, ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে, দাবি রাজ্যের

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: রাজ্য সরকার পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল মহকুমার বারাবনি ব্লকের গৌরান্ডিতে নতুন একটি কয়লা খনি প্রকল্প গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পরিবেশ দফতরের ছাড়পত্র পেলে ওয়েস্ট বেঙ্গল মিনারেল ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড ট্রেডিং কর্পোরেশন আগামী অক্টোবর মাস থেকেই এই খনি থেকে কয়লা উৎপাদন শুরু করবে বলে, পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

রাজ্য সরকারের দাবি, এই প্রকল্পটি তৈরি হলে, নূন্যতম এক হাজার মানুষের সরাসরি কর্মসংস্থান হবে। পরোক্ষে, আরও ১০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে। তিন পর্যায়ে এই প্রকল্পে বিনিয়োগ হবে ১,৫০০ কোটি টাকা। খনিটি পূর্ণ মাত্রায় চালু হলে, আশপাশের অঞ্চলে ক্ষুদ্র অনুসারী শিল্প গড়ে উঠবে।

নবান্ন সূত্রে জানা গিয়েছে, গৌরান্ডি এলাকায় মোট ৪০০ একর জমিতে খোলামুখ খনি প্রকল্প গড়ে তোলা হবে। যে এলাকায় খনি হবে, তার বেশির ভাগই সরকারি খাস জমি ও বন দফতরের অধীন। অল্প সংখ্যক ব্যক্তিগত মালিকানাধীন জমি আছে। সরকারের তরফে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিয়ে ব্যক্তিগত মালিকদের জমি অধিগ্রহণ করা হবে। কর্পোরেশনের তরফে প্রাথমিক ভাবে একর পিছু ১৮ লক্ষ টাকা জমির দাম ধার্য করা হয়েছে। দু’একর জমি পিছু একটি করে চাকরি দেওয়া হবে। কেউ চাকরি না নিলে, ১৫ লক্ষ টাকা এককালীন অর্থ নিতে পারেন। সেই সঙ্গে বহু বছর ধরে সরকারি খাস জমিতে থাকা আদিবাসী সম্প্রদায়ভুক্ত মানুষদেরকেও ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। তাঁদের পরিবার পিছু দু’কাঠা জমির পাট্টা ও একটি বাড়ি বানিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে রাজ্য সরকারের।

 

প্রাথমিক ভাবে ওই এলাকায় ১৩৯ একর খাস জমির সন্ধান মিলেছে। আগামী অক্টোবরের মধ্যে ওই জমিতেই প্রথম পর্যায়ের কাজ শুরু করার পরিকল্পনা আছে। সেখানেও বহু যুবকের কাজ হবে। তবে বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরেই, জমিদাতাদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসন দেওয়ার দাবিতে আন্দোলনের প্রস্তুতি শুরু করেছেন সেখানকার কিছু বাসিন্দা। তাঁরা একর পিছু ২৪ লক্ষ টাকা জমির দাম চাইছেন। সেই সঙ্গে চাইছেন জমি পিছু পরিবারের ২জন করে সদস্যের চাকরি।

Mailing List