সবাইকে অবাক করে থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুকে সঙ্গে নিয়েই শিবিরে গিয়ে রক্তদান করলেন মা

সবাইকে অবাক করে থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুকে সঙ্গে নিয়েই শিবিরে গিয়ে রক্তদান করলেন মা
20 Nov 2022, 03:50 PM

সবাইকে অবাক করে থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত শিশুকে সঙ্গে নিয়েই শিবিরে গিয়ে রক্তদান করলেন মা

 

সুলেখা চক্রবর্তী, হাওড়া

 

ক্লাস থ্রির ছাত্র রাজু (নাম পরিবর্তিত)। বয়স যখন দশ মাস তখন থেকেই নিয়মিত হাসপাতালের বেডে শুয়ে রক্ত নিয়েছে সে। এই একরত্তি বয়সেও সুঁচের কষ্ট আর তাকে কষ্ট দেয় না। বলাই বাহুল্য এখন তার অভ্যাস হয়ে গিয়েছে। আর দীর্ঘ এই লড়াইয়ে জন্মদাত্রী মা ছলছল চোখে দেখেছেন ছেলের যন্ত্রনা। এখন থ্যালাসেমিয়া আক্রান্ত হয়েও স্বাভাবিক জীবন যাপন করছে সে। এই বয়সেই তার পরিচিত হয়ে গিয়েছে হাসপাতালের নার্সরা। রক্ত নিতে গেলেই পরম আদরে ভরিয়ে দেয় তারা। বিষয়টা যেন মেনেই নিয়েছে একরত্তি রাজু।

এহেন সন্তানের মা শেফালী মন্ডল রবিবার শ্যামপুরের দেওয়ায় একটি রক্তদান ‌শিবিরে সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে হাজির হলেন। দিলেন রক্তও। জানা গিয়েছে শ্যামপুরের শশাটি গ্রাম পঞ্চায়েতের ত্রিপুরাপুরের বাসিন্দা মৃণাল মন্ডলের স্ত্রী শেফালী মন্ডল রক্তদান শিবির হচ্ছে শুনে স্বামীর‌ কাছে রক্ত দিতে যাওয়ার কথা জানান। বলাই বাহুল্য, সেই আবেদনে সাড়া দিতে না করেন নি স্বামী মৃণালবাবু। এদিন রক্তদান শিবিরে সন্তানকে নিয়ে নিজের ইচ্ছার কথা জানান অন্যতম উদ্যোক্তা আতিয়ার রহমান খানকে। প্রথমে কিছুটা চমকে গেলেও পরে রাজি হন তিনি। শেফালিদেবী রক্তদান করেন হাসি মুখে। এদিন ছোট্ট রাজু মায়ের সামনে দাঁড়িয়ে দেখলো পুরো প্রক্রিয়াটা। যদিও তার চোখে তখন জল।

রক্তদান করতে করতে ওই গৃহবধূ জানান, "আমার ছেলেকে নিয়মিত রক্ত দিয়ে বাঁচিয়ে রেখেছেন মইদুল, স্বপ্নরা। তাদের রক্তদান শিবিরে এসে রক্ত না দিলে বিবেকের কাছে ছোট হয়ে থাকবো। তাই রক্তদান করেছি। স্ত্রীর সঙ্গে সহমত পোষন‌ করেছেন স্বামীও। এদিন এক বিরল রক্তদান শিবিরের সাক্ষী থাকলো দেওয়া গ্রামের বাসিন্দারা।

Mailing List