ফুটবল খেলায় কৃতিত্ব দেখাতেই সিভিক ভলেন্টিয়ারের চাকরি ভাতারের চার মহিলা ফুটবলারকে

ফুটবল খেলায় কৃতিত্ব দেখাতেই সিভিক ভলেন্টিয়ারের চাকরি ভাতারের চার মহিলা ফুটবলারকে
29 Jul 2021, 10:15 PM

ফুটবল খেলায় কৃতিত্ব দেখাতেই সিভিক ভলেন্টিয়ারের চাকরি ভাতারের চার মহিলা ফুটবলারকে

 

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান

 

সিভিক ভলেন্টিয়ারের চাকরি পেল পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের চার মহিলা ফুটবলার। ক্রীড়া ক্ষেত্রে বিশেষ কৃতিত্ব দেখাতে পারায় রাজ্য সরকার চার মহিলা ফুটবলার সেরিনা খাতুন, খুশি খাতুন, রিমা মাজি ও সঞ্চিতা মণ্ডলকে সিভিক ভলেন্টিয়ারের চাকরি দিল। চার ফুটবলার কন্যা বৃহস্পতিবার ভাতার বিধানসভার বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারীর সঙ্গে ভাতার থানায় গিয়ে কাজে যোগ দেয়। সিভিক ভলেন্টিয়ারের কাজে যোগ দিয়ে খুশি মহিলা ফুটবলাররা।

 

বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারী এদিন বলেন, “পূর্বেও ভাতারের ৬ মহিলা ফুটবলার সিভিক ভলেন্টিয়ারের চাকরি পেয়েছে। এদিন যারা চাকরিতে যোগ দিল তারা সকলেই গরিব পরিবারের মেয়ে। মানগোবিন্দ অধিকারী জানান, তিনি বিধায়ক নির্বাচিত হওয়ার কয়েক মাসের মধ্যে তাঁর বিধানসভা এলাকার চার মহিলা ফুটবলার চাকরি পাওয়ায় খুশি এবং গর্বিত। চার কন্যার জীবন ভালভাবে কাটুক, সেটাই তিনি চান বলে জানিয়েছেন।

 

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, চার ফুটবলার সেরিনা খাতুন, খুশি খাতুন, রিমা মাজি ও সঞ্চিতা মণ্ডলের বাড়ি ভাতার থানার এরুয়ার গ্রামে। ভাতার বিধাণসভার বিধায়ক মানগোবিন্দ অধিকারীরও একই গ্রামের বাসিন্দা। চার কন্যা এরুয়ার উদয়াচল ক্লাবের ফুটবল কোচিং ক্যাম্প থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন। জেলা ও রাজ্যস্তরের প্রতিযোগিতায় একাধিকবার তারা ভালো পারফরম্যান্স করেন। সেই কারণে ওদের ভাতার থানায় সিভিক ভলেন্টিয়ার্স পদে নিয়োগের সিদ্ধান্ত অনেক আগেই হয়েছিল। কিন্তু তখন বয়স ১৮ বছর না হওয়ার কারনে তাদের নিয়োগ করা যাচ্ছিল না। বয়স  ১৮ বছর পূর্ণ হয়ে যাওয়ায় চার কন্যা এদিন সিভিক ভলেন্টিয়ারের চাকরিতে যোগ দিল।

 

 

এরুয়ার গ্রামের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, মানগোবিন্দ অধিকারী নিজে একজন ক্রীড়া প্রেমী মানুষ । উনিও দীর্ঘদিন খেলাধুলার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ফুটবল, ক্রিকেট দুই খেলাতেই যথেষ্ট পারদর্শী ছিলেন মানগোবিন্দবাবু। দক্ষ খেলোয়াড় হিসাবে এককালে তাঁর পরিচিতি ছিল। মানগোবিন্দবাবুর  উদ্যোগেই এরুয়ার গ্রামের উদয়াচল ক্লাবে মহিলাদের জন্য ফুটবল কোচিং ক্যাম্প শুরু হয়। এখনও সেই ক্যাম্প চালু রয়েছে। ওই ক্লাবের কোচিং ক্যাম্পে প্রশিক্ষণ নিয়ে এখন অনেকে জেলা ও রাজ্যস্তরের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করে নিজেদের দক্ষতা প্রমাণ করেছেন। 

ads

Mailing List