ইকবাল রাশেদীন এর জন্মদিনে তাঁর কয়েকটি কবিতা

 ইকবাল রাশেদীন এর জন্মদিনে তাঁর কয়েকটি কবিতা
08 Jul 2022, 10:00 AM

 ইকবাল রাশেদীন এর কবিতা

 

 

ইকবাল রাশেদীন

 

গোধূলি পেরিয়ে

 

তুমি আর-একটু ভালোভাবে বলতে পারলে আমি হেসে

উঠতাম, এখন গোলাপের পাপড়িগুলি দ্যাখো। অঝোর

বৃষ্টি দিলে, খোরাসান, পেয়ে যেতে চাল ধোয়া জলের

মতো কৌমুদী আবেগ।

 

একটি শুকনো পাতা ডাল থেকে খ'সে গিয়ে ভাসতে

ভাসতে মাটির দিকে নেমে আসছে। দ্যাখো। আমি

নিঃসঙ্গ নই, আমি হাসছি, জল যেমন আর-একটু জলে

মিশে যেতে চায়।

.......

 

 

বিরহ এখন পেঁপের কষ চুইয়ে চুইয়ে নামে

 

মামার সাথে আমার বয়সের পার্থক্য পাঁচ। আমার যখন দশ মামার তখন পনের। আমার যখন পনের মামার তখন বিশ। আমার যখন বিশ বা ত্রিশ বা চল্লিশ মামার তখন পঁচিশ বা পঁয়ত্রিশ বা পঁয়তাল্লিশ। পাঁচ বছর অন্তর অন্তর আমি মামার বয়সকে ছুঁয়ে দিলেও আমরা নক্ষত্রের মতো দূরে দূরে থাকি।

 

আমার বন্ধু জামিলের কথায় আসা যাক। আমরা একই বয়সি। আমি দশ হলে জামিল দশ, বিশ হলে জামিলও তাই। আমরা একসাথে বেশ এই মেঘ থমথম দিনগুলিতেও দশ কিংবা পঁয়তাল্লিশ কই ফারাক নাহি।

 

তুমি উড়ে যাওয়া পাখি। নাকি মেঘ। উনিশে কুড়িতে। হাসি খেলা হাসি খেলা বিরহ সুখো সখা। বাত ইয়ে হ্যায়, হাসনাহেনার সৌরভ ছড়িয়ে তুমি সেখানেই রয়েছ, যেন লালে নীলে দূর সিগন্যাল। অনন্ত যৌবন বেছে নিয়েছ তুমি। বিরহ এখন পেঁপের কষ চুইয়ে চুইয়ে নামে। ওরে প্রেম, ওরে ছলাকলাসম।

 

ফিরে এসো ফিরে এসো

বন মোদিত ফুলবাসে।

আজি বিরহ রজনী ফুল্ল কুসুম

শিশির সলিলে ভাসে।

........

 

 

সময়

 

এসো শ্যামল, আমরা মায়া সভ্যতার মতো

সময় গণনা শুরু করি –

শস্য ও খরার নামে

ঝড় ও বৃষ্টির নামে

অমঙ্গলের পাঁচদিন

দেবতাদের নামে বরাদ্দ থাক কিছুটা সময়

নক্ষত্রের মতো উজ্জ্বল একটি আলোকবর্ষ

– তোমার নামে

 

কেমন হিম আর ভয়ার্ত হয়ে আসছে তোমার মুখ

খুনিদের চারপাশে সর্বদা পারফিউমের সৌরভ

……

 

 

 

 খোয়াবনামা

 

অপরূপ অন্ধকার

সারারাত তোমার অন্দরে খেলা করি

এসো দূর-নক্ষত্র তারা হিমপালকের অতল

রাত্রি হয়ে এসো

 

ভাগ যাও ইয়ার! কামধ্বনির মতো হিসহিস

আমি বেঁচে থাকি আধাঁর-অশোক ছায়ায়, জলের

রিনিঝিনি কলতান উঁহু

……..

লেখক: কবি ও নাট্যকার, ঢাকা, বাংলাদেশ

Mailing List