দেশ থেকে বিজেপিকে উৎখাতের ডাক দিতে ৯ আগস্ট ফের মেদিনীপুরে আসবেন, জানিয়ে দিলেন মমতা

দেশ থেকে বিজেপিকে উৎখাতের ডাক দিতে ৯ আগস্ট ফের মেদিনীপুরে আসবেন, জানিয়ে দিলেন মমতা
18 May 2022, 01:08 PM

দেশ থেকে বিজেপিকে উৎখাতের ডাক দিতে ৯ আগস্ট ফের মেদিনীপুরে আসবেন, জানিয়ে দিলেন মমতা

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: মেদিনীপুরে আবার ৯ আগস্ট আসবেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।  বুধবার মেদিনীপুরর কলেজ ময়দানে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী সম্মেলনেই এই কথা জানিয়ে দিলেন তিনি। তিনি বলেন,  “মেদিনীপুর স্বাধীনতা সংগ্রামীদের জেলা। এই জেলাতেই গড়ে উঠেছিল তাম্রলিপ্ত সরকার । ১৯৪২ সালে ইংরেজ ভারত ছাড় আন্দোলনের যে ডাক দেওয়া হয়েছিল তাতে এগিয়ে এসেছিল মেদিনীপুর। ইতিহাসকে ভুলে গেলে চলবে না। এই বছর স্বাধীনতার ৭৫ বছর। তাই  ওই দিনকে স্মরণ করে,  আগামী ৯ অগাস্ট ফের আসব মেদিনীপুরে মিটিং করতে।”

এই সঙ্গে এদিন তিনি দলের কর্মীদের নির্দেশ দেন, আগামী ২৬ মে, কাজী নজরুল ইসলামের জন্মদিন প্রতিটি ব্লকে পালন করতে হবে। আগামী ২২ মে রাজা রামমোহন রায়ের ২৫০তম জন্মবার্ষিকী। যিনি সতীদাহ প্রথা বন্ধ করেছিলেন, দেশে সংস্কার  নিয়ে আসার অন্যতম প্রধান পুরোধা  সেই রামমোহন রায়ের জন্মদিন সম্মানের সঙ্গে পালন করা নির্দেশও দিয়েছেন তিনি।

কেন আগে থেকে ফের ৯ অগষ্ট আসার কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, ভারত ছাড়ো আন্দোলন শুরু হয়েছে এখান থেকেই। ভারতের যে তিনটি জায়গা থেকে ইংরেজ ভারত ছাড়ো বলে শ্লোগান উঠেছিল তার মধ্যে মেদিনীপুর একটি। এখানে স্বাধীনতার আগেই স্বাধীন তাম্রলিপ্ত সরকার গঠন হয়েছিল। তাই এখান থেকেই হয়তো তিনি বিজেপিকে উৎখাতেরও ডাক দেবেন। মুখ্যমন্ত্রী এটাও জানান, মেদিনীপুর যা ভাবে তা বাংলা ভাবে। তিনি যখন বিরোধী দলনেত্রী ছিলেন তখনও মেদিনীপুর তাঁকে ভালোবাসা দিয়েছিল। তাই মেদিনীপুর থেকেই তিনি ২০২৪ সালে বিজেপিকে কেন্দ্র থেকে সরানোর ডাক দেবেন।

তারই সঙ্গে মেদিনীপুরের পাশাপাশি ঝাড়গ্রামের সংগঠন কতটা চাঙ্গা হল, তিনি যে নির্দেশ দিয়েছিলেন তা কতটা পালন করল জেলা নেতৃত্ব সেটিও দেখবেন। তারপর সংগঠনেও রদবদল ঘটাতে পারেন বলেই ওয়াকিবহাল মহলের ধারণা।

এদিন এই সঙ্গে দলের নেতাকর্মীদের এক হয়ে কাজ করার, নিজেদের মধ্যে দুরত্ব কমানোর জন্যও দলের নেতাদের নির্দেশ দেন তিনি। মমতা  বলে দিলেন এখন থেকে তাঁদের শ্লোগান ‘ আমি নই, আমরা’।  তিনি বলেন, “আমি হলে চলবে না, সকলকে সঙ্গে নিয়ে কাজ করতে হবে, সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। আমি থেকে আমরা হয়ে, ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে পারলেই আমরা ভারত জয় করতে পারব। তখন দিল্লি আমাদের হাতে মুঠোয় আসবে।” দলের বিধায়ক,জেলা পরিষদ সদস্য, পঞ্চায়েত সদস্যদের জন্য তাঁর আরও কড়া বার্তা দিয়ে তিনি  বলেন, “ আমি নই, আমরা। এই শ্লোগান নিয়েই কাজ করতে হবে। জিতে গেলাম আর মনে করলাম যে ‘আমি’ তা করলে চলবে না।”আর কেউ যদি না করেন তাহলে ‘এক সেকেন্ডেই তাঁর নাম কেটে দেওয়া হবে’।  

ads

Mailing List