মেদিনীপুরে ‘ডাইনি' অপবাদে মারধর বৃদ্ধাকে

মেদিনীপুরে ‘ডাইনি' অপবাদে মারধর বৃদ্ধাকে
05 Dec 2021, 06:59 PM

মেদিনীপুরে ‘ডাইনি' অপবাদে মারধর বৃদ্ধাকে

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন :  ডাইনি অপবাদে এক বৃদ্ধাকে মারধর করার অভিযোগ উঠল মেদিনীপুরে। শনিবার রাতে  মেদিনীপুরের কাছে  সাতগেড়িয়া এলাকায়  ওই ঘটনা ঘটেছে। গুরুতর জখম অবস্থায় ওই মহিলাকে ভর্তি করানো হয়েছে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় ১২-১৩ জনের একটি দল ওই বৃদ্ধাকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে গালিগালাজ শুরু করে। বৃদ্ধা প্রতিবাদ করলে তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। ওই মহিলার মাথায় ও পিঠে চোট লেগেছে। ঘটনার সময়ই এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা তাঁকে উদ্ধার করেন। তাঁকে প্রথমে পাঁচখুরি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।  অবস্থার অবনতি হলে নিয়ে আসা হয় মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে।

বছর পঞ্চাশের ওই মহিলার পরিবারের দাবি, গত কয়েকদিন ধরেই এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা বিভিন্ন রোগে ভুগছিলেন। অভিযোগ, তাঁদের অসুস্থতার জন্য ওই বৃদ্ধাকে দায়ী করে 'ডাইনি' অপবাদ দেওয়া হয়। তাঁর বাড়িতে চড়াও হয় বেশ কয়েকজন। এরপরেই তাঁকে হেনস্থা এবং বেধড়ক মারধর করা হয় ।

জেলা পুলিশের আধিকারিক অবশ্য  'ডাইনি' অপবাদে মারধরের কথা স্বীকার করেননি। তাঁদের দাবি, পাড়ার মধ্যে কোনও কারণে বিবাদ ঘটেছিল। তা থেকেই ওই মারধরের ঘটনা ঘটে।

আহত ওই বৃদ্ধাকে হাসপাতালে দেখতে রবিবার হাসপাতালে যান বিধায়ক দীনেন রায়। স্থানীয় তৃণমূল  ও আদিবাসী সমাজের নেতৃত্বদের সঙ্গে নিয়েই হাসপাতালে বৃদ্ধাকে দেখতে তিনি।   দীনেন রায় বলেন, ‘এটা একটা সামাজিক সমস্যা।’

ইতিমধ্যেই মারধরে অভিযুক্ত কয়েকজনকে গ্রেফতার করেছে কোতোয়ালি থানার পুলিশ। সমাজগতভাবে এই সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে আদিবাসী সমাজের  সদস্যরা এগিয়ে এসেছেন। এর আগেও ওই মহিলাকে মারধর করা হয়েছে, দীর্ঘদিন তিনি ঘরছাড়া ছিলেন বলেই জানিয়েছেন বিধায়ক দীনেন রায়। যাতে এই ধরনের ঘটনা আর না ঘটে তা দেখার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। আগেও এই জেলাতে ডাইনি সন্দেহে অনেককেই মারধর করা হয়।

ads

Mailing List