পাঠ্যবইয়েও এবার করোনার থাবা! থাকবে সকল ক্লাসেই

পাঠ্যবইয়েও এবার করোনার থাবা! থাকবে সকল ক্লাসেই
29 Jun 2020, 08:34 PM

পাঠ্যবইয়েও এবার করোনার থাবা! থাকবে সকল ক্লাসেই

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় প্রায় স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল গোটা দেশ। তারপরই চালু হয় লকডাউন। আপাতত আনলক ওয়ানে স্বাভাবিক ছন্দে ফেরার চেষ্টা করছেন সকলে। খুলেছে সরকারি, বেসরকারি অফিস, ধর্মীয় স্থান। তবে এখনও খোলেনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলি। কবে খুলবে স্কুল, কলেজ সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া যায়নি এখনও। তবে তারই মাঝে পাঠ্যক্রমে কিছু বদল আনার কথা ভাবছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এবার রাজ্যের স্কুল পাঠ্যে অন্তর্ভুক্ত হবে করোনা ভাইরাস। প্রথম থেকে দ্বাদশ প্রতিটি শ্রেণীর সিলেবাসে রাখা হবে করোনা সংক্রমণ, সতর্কতা ও প্রতিকারের কথা। এই মারণ ভাইরাস ঠিক কী? কীভাবে তা ছড়াতে পারে? সংক্রমণ এড়ানোর সম্ভাব্য উপায় এবং নানা ধরনের করোনা সতর্কতা অন্তর্ভুক্ত করা হবে সিলেবাসে।

রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এ বিষয়ে বিস্তারিত পরিকল্পনার নির্দেশ দিয়েছেন স্কুল শিক্ষা বিশেষজ্ঞ কমিটিকে। কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক অভীক মজুমদার জানিয়েছেন, “ছাত্র-ছাত্রীদের মাধ্যমেই গণসচেতনতা গড়ে ওঠে। বাচ্চারাই অভিভাবকদের সাবধান করতে পারে। করোনা সতর্কতা সিলেবাসে রাখা নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা হয়েছে। প্রত্যেক ক্লাসের পাঠ্যবইতে এটি থাকা দরকার। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশ কার্যকর হবে।” স্কুল শিক্ষা দপ্তরের এক কর্তা জানিয়েছেন, প্রত্যেকটি পাঠ্যবইয়ের শুরুতেই সংবিধানের প্রস্তাবনা থাকে। করোনা সতর্কতার বিষয়টি আমরা পাঠ্যবইয়ের পিছনে অন্তত ১-২ পাতা করে রাখতে পারি।

রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয় স্তরে কোভিড-১৯ পাঠক্রমে ইতিমধ্যেই ঢুকে পড়েছে। সিধো-কানহো-বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তরের পাঠক্রমে বিষয়টি রেখেছে কর্তৃপক্ষ। লখনউ বিশ্ববিদ্যালয়ও একই রাস্তায় হাঁটছে। তবে স্কুলস্তরে এখনও অন্য কোনও রাজ্য করোনা অন্তর্ভুক্ত করা নিয়ে কিছু ভাবেনি। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত প্রয়োজনীয় এবং বাস্তবোচিত বলে মনে করছে শিক্ষামহল।

Mailing List