১৪ হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে সর্ষে চাষের উদ্যোগ রাজ্যে, কোন জেলায় কত পরিমাণ চাষ হবে

১৪ হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে সর্ষে চাষের উদ্যোগ রাজ্যে, কোন জেলায় কত পরিমাণ চাষ হবে
07 Nov 2022, 03:24 PM

১৪ হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে সর্ষে চাষের উদ্যোগ রাজ্যে, কোন জেলায় কত পরিমাণ চাষ হবে

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: রাজ্যে তৈলবীজের উৎপাদন বাড়াতে চলতি বছর বিভিন্ন জেলার ১৪ হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে সর্ষে চাষের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য জাতীয় খাদ্য সুরক্ষা মিশন প্রকল্পের আওতায় কৃষকদের বিনামূল্যে সর্ষে বীজ বণ্টন করা হচ্ছে।এছাড়াও এই প্রকল্পের অধীনে ৭৫০ হেক্টর জমিতে চীনা বাদাম এবং আট হাজার হেক্টর জমিতে তিলের চাষ হবে। এই কর্মসূচিতে রাজ্যের বিভিন্ন জেলার প্রায় ৩০ হাজার কৃষক উপকৃত হবেন বলে কৃষি দফতর সূত্রে জানা গেছে। এই প্রকল্পে সব মিলিয়ে খরচ হচ্ছে ৪ কোটি ৩০ লক্ষ টাকা।

জানা গিয়েছে, মুর্শিদাবাদ জেলায় সবচেয়ে বেশি জমিতে সর্ষে চাষ হবে। জেলাওয়াড়ি হিসেব বলছে, এক হাজার হেক্টরের বেশি জমিতে সর্ষে চাষ হবে, এমন জেলার সংখ্যা সাত। সেগুলি হল মুর্শিদাবাদ (২,৩৬০ হেক্টর), উত্তর ২৪ পরগনা (১,০৬০ হেক্টর), নদীয়া (১,৬০০ হেক্টর), পূর্ব বর্ধমান (১,০১০ হেক্টর), বীরভূম (১,৪৬০ হেক্টর), উত্তর দিনাজপুর (১,২০০ হেক্টর), দক্ষিণ দিনাজপুর (১,১০০ হেক্টর)। মূলত সর্ষের চাষ বেশি হয় মুর্শিদাবাদ ও নদীয়া জেলায়। ইদানীং দুই দিনাজপুরও উঠে এসেছে এই তালিকায়। ফলে এই জেলাগুলিতে বেশি সংখ্যক কৃষককে বীজ দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, চীনা বাদামের চাষ সব জেলায় হয় না। অন্যত্র এই বাদাম চাষের অনুকূল পরিবেশ নেই। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ২১০০ হেক্টর জমিতে তিলের চাষ করবেন কৃষকরা। যা রাজ্যের মধ্যে সর্বাধিক। তবে এই চাষ কমবেশি সব জেলাতেই হয়। এই চাষের জন্য ২ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা খরচ হবে সরকারের।

Mailing List