মমতাকে বড় মাপের রাজনৈতিক নেত্রী বলে স্বীকার অমিত শাহ থেকে রাজ্যপালের

মমতাকে বড় মাপের রাজনৈতিক নেত্রী বলে স্বীকার অমিত শাহ থেকে রাজ্যপালের
22 Feb 2021, 11:07 AM

মমতাকে বড় মাপের রাজনৈতিক নেত্রী বলে স্বীকার অমিত শাহ থেকে রাজ্যপালের

 

আনফোল্ড বাংলা বিশেষ প্রতিবেদন: ভোট যত এগিয়ে আসছে, ততই একে অপরের বিরুদ্ধে তোপ দাগছেন। বিষোদ্গার যেন মাত্রা ছাড়া। তা দুর্নীতি নিয়ে হোক বা ধর্ম নিয়ে। সংস্কৃতি নিয়ে হোক বা মণীষীদের নিয়ে। তারই মাঝে তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বড় মাপের নেত্রী বলেও স্বীকার করে ফেললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ থেকে রাজ্যের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়।

 

সম্প্রতি এক বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিচ্ছিলেন। সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাফ জানালেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একজনবড় মাপের রাজনৈতিক নেত্রী! তাহলে এত বিরুদ্ধাচারণ কেন? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধায় বড় মাপের রাজনৈতিক নেত্রী হলেও তিনি ‘অসফল’। আর এই কারণেই নাকি রাজ্য পিছিয়ে পড়ছে। বিজেপি রাজ্যের ক্ষমতা দখল করে রাজ্যকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়।

 

আর রাজ্যপালও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বড় মাপের নেত্রী স্বীকার করেও প্রতিদিন কেন ট্যুইটে বা বিভিন্ন সরকারি কর্মসূচীতে গিয়ে রাজ্য সরকারের কঠোর সমালোচনা করছেন? ওই সাক্ষাৎকারে রাজ্যপালন জানান, রাজ্যে আইন শৃঙ্খলা বলে কিছু নেই। সরকারি আধিকারিকরা রাজনীতির প্রথম সারিতে নেমে পড়ছেন। যা অনৈতিক। নীতি বিরুদ্ধ। রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে তাই তিনি সে কথা বারবার মনে করিয়ে দেন।

 

এবার পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতা দখলে মরিয়া বিজেপি। তাবড় কেন্দ্রীয় নেতারা রাজ্যে আসছেন ঘনঘন। মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধছেন নানাভাবে। মুখ্যমন্ত্রী পাল্টা দোপ দাগছেন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে, বিজেপি নেতা-নেত্রীদের বিরুদ্ধে। এসবের মাঝেও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও রাজ্যপালের বক্তব্য ইঙ্গিতবহ বলেই মনে করছেন সকলে। কারণ, দুই মেরুতে অবস্থান নিয়ে দু’পক্ষ এখন লড়াইয়ের ময়দানে। সেই জায়গায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বড় মাপের রাজনৈতিক নেত্রী হিসাবে স্বীকার করে নেওয়া কিন্তু আদৌ ছোটখাটো ব্যাপার নয়। কারণ, যাঁরা এই কথাটি স্বীকার করছেন, তাঁরাও যে উচ্চ পদে আসীন।  

 

Mailing List