ফের বিজেপি-সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগ বাঁকুড়ায়

ফের বিজেপি-সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগ বাঁকুড়ায়
15 Jun 2020, 03:41 PM

ফের বিজেপি-সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলের যোগ বাঁকুড়ায়

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন, বাঁকুড়া: আনলক পর্ব শুরু হতেই জেলায় রাজনীতিতে চলছে দল বদলের হিড়িক। রবিবার বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলার সোনামুখীতে বিজেপি,  সিপিআইএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন প্রায় আড়াই হাজার কর্মী। ফের সোমবার এই সাংগঠনিক জেলার ওন্দা বিধানসভার কল্যাণী অঞ্চলে লেদাসন ফুটবল মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা ধরলেন বিজেপি, সিপিআইএম ছেড়ে আসা প্রায় ৫০০ কর্মী। এদিনের সভায় জেলা তৃণমূল সভাপতি শুভাশিস বটব্যাল, এলাকার বিধায়ক অরূপ খা, জেলার মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা দলের পতাকা তুলে দিলেন বিজেপি ও সিপিআইএম ছেড়ে আসা কর্মীদের হাতে। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে বিষ্ণুপুর লোকসভা আসন হাতছাড়া হয় শাসক তৃণমূলের। আগামী ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে নিজেদের ভোট ব্যাংক ফিরিয়ে আনতে মরিয়া তৃণমূল নেতৃত্ব। করোনা পরিস্থিতিতে দলীয় ভাবে জেলার বিভিন্ন প্রান্তে অসহায় মানুষদের ত্রাণ পৌঁছানোর পাশাপাশি নিজেদের সংগঠনকে মজবুত করার কাজও শুরু করেছে তৃণমূল নেতৃত্ব। হারানো জমি ফিরিয়ে আনতে ঘর গোছানোর প্রস্তুতি শুরু করেছে ঘাসফুল শিবির। বিরোধী দলগুলি থেকে নেতাকর্মীদের দলে এনে সংগঠনকে শক্তিশালী করে ভোটের ময়দানে নামার আগাম প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছে। রাজ্যের প্রতিমন্ত্রী তথা বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যকরী সভাপতি শ্যামল সাঁতরা জানান, বিজেপি এবং সিপিএম ছেড়ে প্রায় ৫০০ জন কর্মী তৃণমূলে যোগদান করেছেন। করোনা পরিস্থিতি ও আমফানের মতো প্রাকৃতিক বিপর্যয়ে দলের নেতাদের পাশে না পেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলে তাঁরা যোগ দিচ্ছেন। বিজেপি ও সিপিএম ছেড়ে আসা সেই কর্মীদের হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দেওয়া হলো বলেই দাবি শ্যামল বাবুর।

বিজেপি ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেস যোগ দেওয়া বিজেপির এস,সি মোর্চার জেলা কমিটির সদস্য মিঠুন মাঝি  অভিযোগ করেন, করোনা পরিস্থিতিতে বিজেপির জেলা নেতৃত্ব এমনককী বিষ্ণুপুরের লোক সভা কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খা কে দেখতে পাওয়া যায়নি। দলের প্রতি এমনই ক্ষোভ উগরে দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের পতাকা ধরলেন কল্যাণী অঞ্চলের কয়েকশো বিজেপি কর্মী। বিজেপির কেউ তৃণমূলে যোগদান করেনি পাল্টা দাবি বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা বিজেপি নেতৃত্বের। তৃণমূলের লোকদের বিজেপি সাজিয়ে তৃণমূলের যোগদান দেখানো হচ্ছে দাবি বিজেপির।

Mailing List