ফের ধস নামল অন্ডালে, হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল দোতলা বাড়ি

ফের ধস নামল অন্ডালে, হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল দোতলা বাড়ি
22 Jul 2020, 02:34 PM

ফের ধস নামল অন্ডালে, হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল দোতলা বাড়ি

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: বুধবার ভোরে ফের ধস নামল অন্ডালের (Andal) হরিশপুরে। তার ফলে হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ল দোতলা বাড়ি। বেশ কয়েকটি কাঁচা বাড়িও ভেঙে পড়েছে। এখনও পর্যন্ত হতাহতের কোনও খবর নেই। তবে এই ঘটনার পর এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন অনেকেই।

গত ১৫ জুলাই জাতীয় সড়ক থেকে হরিশপুর গ্রামে ঢোকার একমাত্র রাস্তায় বড় বড় ফাটল দেখা যায়। তারপর থেকেই ঘন্টায় ঘন্টায় বাড়ছে ফাটল। গ্রামের প্রায় ১০০টি বাড়ি কমবেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। রবিবার তুমুল বৃষ্টিতে আরও ভয়াবহ হয়ে উঠেছে হরিশপুর। রাত থেকে পরিস্থিতি জটিল আকার ধারণ করে। বাড়িতে বাড়িতে ফাটল ধরে। হেলে পড়ে বহু বাড়ি। মাটির নিচেও বসতে শুরু করেছে বেশ কিছু বাড়ি। বাড়ির দেওয়াল ভেঙে গিয়ে পড়ে পাশে থাকা চারচাকা গাড়ির উপর। এইভাবে প্রায় ৪টি গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বুধবার সকালে আরও একটি দোতলা বাড়ি হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়েছে। এর আগে জামবাদে ধসের কারণে বাড়ি-সহ তলিয়ে যান এক মহিলা। ১১ দিন পর তাঁর পচাগলা দেহ উদ্ধার হয়।

রাস্তাও ভাঙছে প্রতিমুহূর্তে। ফাটলের গহ্বর দিয়ে বেরোচ্ছে ধোঁয়া। রাতারাতি বাড়ি হেলে পড়ছে বা বসে যাচ্ছে। মাঝরাতে বাড়ির দেওয়াল ভেঙে পড়ে দামি গাড়ির উপর। এই সব ঘটনা দেখে স্বভাবতই আতঙ্কিত গ্রামের বাসিন্দারা। গ্রাম ছেড়ে পালাচ্ছেন তারা। ক্রমেই ভয়াবহ হয়ে উঠছে হরিশপুর। যে কোন সময় তলিয়ে যেতে পারে ১২০০ টি পরিবার নিয়ে ৫৬৩ টি বাড়ি সহ গোটা হরিশপুর গ্রাম।

পুনর্বাসনের দাবিতে সোমবার ২ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন হরিশপুর গ্রামের বাসিন্দারা। এর আগেই ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেন সিপিএম বিধায়ক-সহ বামেদের প্রতিনিধিদল। পুনর্বাসনের দাবিতে দফায় দফায় ২ নম্বর জাতীয় সড়কও অবরোধ করেন ক্ষুব্ধ গ্রামবাসীরা। ঘেরাও করা হয় ইসিএলের কাজোরা এরিয়া অফিসও। তবে প্রশ্ন একটায় এই ভাবে ক্রমাগত ধস নামার কি কোনও সুরাহা আছে, নাকি এই সবই বড় দুর্যোগের আগাম পূর্বাভাস!

Mailing List