টপ ১০০ গ্লোবাল টেক চেঞ্জমেকারদের মধ্যে জায়গা করে নিলেন কু-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণ

টপ ১০০ গ্লোবাল টেক চেঞ্জমেকারদের মধ্যে জায়গা করে নিলেন কু-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণ
14 May 2022, 11:15 AM

টপ ১০০ গ্লোবাল টেক চেঞ্জমেকারদের মধ্যে জায়গা করে নিলেন কু-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণ

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: কু (Koo)-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও, অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণ আন্তর্জাতিক নন-প্রফিট সাংবাদিকতা সংস্থা রেস্ট অফ ওয়ার্ল্ড (RoW) দ্বারা শীর্ষ ১০০ প্রভাবশালী প্রযুক্তি নেতাদের মধ্যে ঢুকে পড়লেন। শুক্রবার ১৩৪ মে তিনি এই স্বীকৃতি পান।

সংস্থার দাবি, কু এর মূল লক্ষ্য হল স্থানীয় ভাষায় মানুষজন যাতে নিজেদের অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে সক্ষম হয়। যা একটি বাস্তব-বিশ্বের সমস্যা সমাধানের উদ্ভাবনী এবং বাধাহীন সমাধান হিসাবে স্বীকৃত হয়েছে। এর ফলে লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবনে ইতিবাচক প্রভাব পড়ছে। কু-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও, অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণকে RoW  বিশ্বের ১০০ জন প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বের মধ্যে একজন হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে, যারা অনন্য চ্যালেঞ্জগুলি অতিক্রম করার সাথে সাথে তাদের পরিচিত সম্প্রদায়ের জন্য প্রোডাক্ট তৈরি করছেন।

কু তৈরি করা হয়েছিল ভারতে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের ক্ষমতায়ন করার জন্য। ভারত এমন একটি দেশ যেখানে মাত্র ১০ শতাংশ মানুষ ইংরেজিতে কথা বলেন। তাঁদের স্থানীয় ভাষায় নিজেদের প্রকাশ করতে এবং নিজেদের স্থানীয় সম্প্রদায়কে আবিষ্কার করে তাদের সাথে যোগাযোগ সক্ষম করতে তৈরি হয় কু অ্যাপ। অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণ প্রকৃতপক্ষে, RoW100: Global Tech's Changemakers-এ 'সংস্কৃতি এবং সামাজিক মিডিয়া' বিভাগে বৈশিষ্ট্যযুক্ত ভারতের একমাত্র উদ্যোক্তা - যা পশ্চিমের গতিশীল উদ্যোক্তা, উদ্ভাবক এবং বিনিয়োগকারীদের সূচনা করে, যাদের অসামান্য অবদানের ফলে গোটা বিশ্ব পরিবর্তন করছে।

কু-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও অপ্রমেয়া রাধাকৃষ্ণ বলেন, “আমরা রোমাঞ্চিত এবং RoW100: গ্লোবাল টেক'স চেঞ্জমেকারদের মধ্যে স্বীকৃতি নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করছি। যেখানে বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে প্রসিদ্ধ উদ্যোক্তা এবং স্বপ্নদর্শীরা রয়েছেন, যারা যুগান্তকারী পদক্ষেপের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ মানুষের জীবনে প্রভাব ফেলছেন, দূর দূরান্তে থাকা মানুষকে যুক্ত করে দিয়েছেন এক ছাতার তলায়, সেই কাজটি করতে কু ও সক্ষম হয়েছে।  রেস্ট অফ ওয়ার্ল্ডের মতো একটি মর্যাদাপূর্ণ সংস্থার দ্বারা স্বীকৃত হওয়া সত্যিই আমাদের জন্য একটি গর্বের বিষয়। আমরা ভাষা-ভিত্তিক মাইক্রো-ব্লগিং-এ একটি ফাঁক খুঁজে পেয়েছি এবং একটি সমাধান তৈরি করেছি যা একটি উচ্চতর এবং নিমগ্ন বহু-ভাষা অভিজ্ঞতা প্রদান করে। স্থানীয় ভাষায় আত্ম-প্রকাশের প্রয়োজনীয়তা ভারতের জন্য অনন্য কিছু নয়, বরং একটি বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ, যেহেতু বিশ্বের 80% মানুষ ইংরেজি ছাড়া অন্য ভাষাতেও কথা বলে। তাই আমাদের সমাধান বিশ্বব্যাপী মাপযোগ্য এবং সারা বিশ্বের বাজারের সাথে প্রাসঙ্গিক। আমরা উন্মুক্ত ইন্টারনেটে ভাষার বিভাজন দূর করার দিকে মনোনিবেশ করছি, পাশাপাশি ভাষাগত সংস্কৃতি জুড়ে মানুষকে সংযুক্ত করতে এবং আমাদের ভারতের তৈরি পণ্য, বাকি বিশ্বের কাছে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে চলেছি।

 

Koo (কু) সম্পর্কে তথ্য:

মাইক্রো ব্লগিং, বহুভাষিক সোশ্যাল মিডিয়া প্লাটফর্ম Koo (কু) অ্যাপ লঞ্চ হয় 2020 সালের মার্চ মাসে। যেখানে ভারতীয়রা নিজেদের মাতৃভাষার মাধ্যমে মত প্রকাশ করতে পারবে। কু হল ভাষাভিত্তিক মাইক্রো-ব্লগিং অ্যাপের সংস্কারক। বর্তমানে স্মার্ট ফিচার্সের মাধ্যমে হিন্দি, মারাঠী, গুজরাতি, পঞ্জাবি, কানাডা, তামিল, তেলুগু, অসমীয়া, বাংলা, এবং ইংরাজির মতো ১০ টি ভাষায় উপলব্ধ রয়েছে Koo (কু) অ্যাপ। কু ভারতবাসীকে গণতান্ত্রিক অধিকার প্রদান করতে পেরেছে যেখানে সকলে নিজেদের আঞ্চলিক ভাষায় কথোপকথনের মধ্যে দিয়ে একে অপরের সঙ্গে যোগযোগ করতে পারে। উদ্ভাবনী ফিচার্সগুলির মধ্যে, প্ল্যাটফর্মের ট্রান্সলেশন ফিচার্স অন্যতম, রিয়েল-টাইম অনুযায়ী একসঙ্গে একাধিক ভারতীয় ভাষায় একটি পোস্টের ট্রান্সলেশন করতে পারে এই ফিচার্স। এর মাধ্যমে ইউজার অনেক বেশি ট্র্যাকশন অর্জন করে থাকে। বর্তমানে Koo (কু) অ্যাপে সারা ভারতজুড়ে 30 মিলিয়নেরও বেশি ইউজার যুক্ত হয়েছে। এর পাশাপাশি রাজনীতি, খেলা, বিনোদন, মিডিয়া, আধ্যাত্মিকতা, এবং শিল্প ও সংস্কৃতির সঙ্গে যুক্ত এমন 7,000 হাজারেরও বেশি অ্যাক্টিভ বিশিষ্ট মানুষজন রয়েছে।

ads

Mailing List