সাপের বিষের তেজ কতটা ভয়ঙ্কর হবে তা কার উপর নির্ভর করে জানেন? সাপ ইঁদুর খেলো না ব্যাঙ, টিকটিকি নাকি পাখি, তার ওপর!

সাপের বিষের তেজ কতটা ভয়ঙ্কর হবে তা কার উপর নির্ভর করে জানেন? সাপ ইঁদুর খেলো না ব্যাঙ, টিকটিকি নাকি পাখি, তার ওপর!
23 Sep 2022, 09:15 AM

সাপের বিষের তেজ কতটা ভয়ঙ্কর হবে তা কার উপর নির্ভর করে জানেন? সাপ ইঁদুর খেলো না ব্যাঙ, টিকটিকি নাকি পাখি, তার ওপর!

 

নিলয় মন্ডল

 

"বিষ" - শব্দটি শুনলে আমাদের মাথায় যে প্রাণীটির কথা আসে তা হলো সাপ, প্রাণী হিসেবে সাপ বদনাম কুড়োলেও কিছু ব্যাঙ সাপের চাইতে বিষাক্ত। সাপ ভেনোমাস, পয়সোনাস না। কারণ, সাপ বিষ ঢালে। সাপের মধ্যে যেমন বেশকিছু বিষধর সাপ রয়েছে, তেমনই রয়েছে বিষহীন সাপও। আবার সব বিষধর সাপেরই বিষের প্রভাব যে একইরকম তা কিন্তু নয়।

কেন এই বিষ এর বৈচিত্র্য? বা কিভাবে এই বৈচিত্র্য ঘটে? - তা নিয়ে নানা দেশ বিদেশের গবেষকরা গবেষণারত। 'ক্লেমসন বিশ্ববিদ্যালয়ের' একদল গবেষকের মতে - " Diversity in diet plays a role in the complexity of venom".

 

তাঁদের ব্যাখ্যা, যদি একটি সাপ একই প্রজাতির কুড়িটি প্রাণীকে খেয়ে থাকে তখন তার বিষের জটিলতা বা বৈচিত্র্য খুব বেশি হবে না। অর্থাৎ যা হবে তার থেকে অনেক বেশি হবে যদি সাপটি ভিন্ন প্রজাতির একটি করে প্রাণী খেয়ে থাকে। এক্ষেত্রে সাপটির বিষ এ আসা উপাদানগুলি বিভিন্ন প্রজাতি থেকে আসছে খাওয়ার মাধ্যমে এবং বিভিন্ন উপায়ে বিষটিকে প্রভাবিত করছে যার ফলে এই জটিলতা সৃষ্টি হয়।

ধরা যাক একটি সাপ একরাতে ১০ টি ইঁদুর খেলো। কিন্তু সেই সাপের বন্ধু সাপ দুটো ব্যাঙ, দুটো ইঁদুর, দুটো গিরগিটি, আর চারটে বড়ো পোকা খেলো। এক্ষেত্রে বন্ধু সাপের বিষের বাহার অনেকটা বেশি হবে।

সর্পদংশনে যে সব ক্ষেত্রেই তৎক্ষণাৎ মৃত্যু হয়েছে এমনটাও কিন্তু নয়। অনেক সময় খুব বিষধর সাপের কামড়েও মৃত্যু হয় না। কিন্তু স্নায়ুরোগ বা কোষ নষ্টের মতো কিছু দীর্ঘস্থায়ী ব্যাধির জন্য দায়ী হয়ে থাকে। এর প্রধান কারণই হলো এই বিষ এর বৈচিত্র্য। সোজা কথায় বলা যায়, যে সাপের বিষ এর উপাদানে যত বেশি ধরনের প্রোটিন থাকবে তার ক্ষতিকর প্রভাব তত বেশি হবে।

গবেষক Holding এর মতে," Venom is a toolbox of snake."  কিছু কিছু সাপের বিষ খুবই সাধারণ হয়। কারণ, তাতে উপাদানের ধরণ কম থাকে। কিন্তু যাদের বিষ ক্ষতিকারক হয় তাদের বিষে বাহ্যিক উপাদান বা প্রোটিনের ধরণও বেশি হবে। অর্থাৎ  সাপের খাদ্য তালিকার ওপর বিষের যাতনা নির্ভরশীল।

একটি রেঞ্জ, সকেট ও স্ক্রু ডাইভার এর ব্যাবহার যেমন পৃথক পৃথক হয় তেমনই সাপের বিষে থাকা প্রোটিন গুলির কাজ পৃথক পৃথক হয় যখন বিষটি আলাদা আলাদা প্রজাতির প্রাণীতে প্রয়োগ করা হয়, যেগুলো সাপের খাদ্য তালিকায় উপস্থিত।

Holding বলেন, " Venom complexity changes is association with the phylogenetic diversity of snakes diet, with the evolution of both simplier and more complex venoms". অর্থাৎ বলাই যায় যে, "সাপের খাদ্য তালিকার পরিবর্তনে তার বিষক্রিয়ার প্রভাবও পরিবর্তনশীল"।

মানুষের হৃদরোগ ও রক্তচাপে এর মত গুরুত্বপূর্ণ রোগের চিকিৎসায় সাপের বিষ ব্যবহার করা হয় ওষুধ তৈরির জন্য। বিষ সংক্রান্ত এই ধরনের গবেষণা পরবর্তীকালে আরো উন্নত মানের অ্যান্টিভেনম তৈরিতে সাহায্য করবে। গবেষণাতে পাওয়া যাচ্ছে ভারত বর্ষের বিভিন্ন প্রান্তের থেকে পাওয়া কালাচ ও গোখরার বিষের যথেষ্ট পার্থক্য। পরিবেশ ও খাদ্য গ্রহণের পার্থক্যর কারণে বিষের ভোল বদল।

Mailing List