করোনায় বিপর্যস্ত পড়ুয়াদের ফি মকুবের সিদ্ধান্ত নিল কল্যাণী এবং পুরুলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়

করোনায় বিপর্যস্ত পড়ুয়াদের ফি মকুবের সিদ্ধান্ত নিল কল্যাণী এবং পুরুলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়
30 May 2021, 06:21 PM

করোনায় বিপর্যস্ত পড়ুয়াদের ফি মকুবের সিদ্ধান্ত নিল কল্যাণী এবং পুরুলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন:  আগের দিনই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেন যে সব ছেলেমেয়ে করোনার কারণে অনাথ হয়েছে তাদের শিক্ষার দায়িত্ব নিচ্ছে রাষ্ট্র। পিএম কেয়ারস ফান্ড থেকে ওই সব ছেলেমেয়েদের একটি  মাসিক ভাতা দেওয়া হবে এবং তারা যাতে তাদের পড়াশোনা ঠিকমত চালিয়ে যেতে পারে তা দেখবে কেন্দ্র।  এছাড়াও ওই সব অনাথ ছেলেমেয়েদের জন্য আরও কিছু আর্থিক সুবিধার কথাও ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী।

আর এবার, করোনার কারণে বিপর্যস্ত হয়ে পড়া পড়ুয়াদের ফি মকুবের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের দুটি বিশ্ববিদ্যালয়। কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, করোনা আক্রান্ত হয়ে কোনও পড়ুয়ার বাবা অথবা মা মারা গেলে তাকে পরীক্ষার ফি দিতে হবে না। আর পুরুলিয়ার সিধো-কানহো-বিরসা বিশ্ববিদ্যালয় জানিয়েছে, যেসব পরিবার করোনার কারণে আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়েছে, চলতি সেমিস্টারে সেই পড়ুয়াদের কোনও ফি লাগবে না।

করোনার কারণে বহু পরিবার কাজ হারিয়েছে।  এর জেরে ভেঙে পড়েছে গ্রামীণ অর্থনীতি।  এই অবস্থায় ছেলেমেয়েদের পড়া, বিশেষ করে উচ্চ শিক্ষা চালিয়ে যেতে হিমসিম খাচ্ছে বহু পরিবার। এই জন্য বিভিন্ন মহল থেকে দাবি ওঠে যাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ফি মকুব করা  হয়।  জানা গিয়েছে, এই নিয়ে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সাথে বৈঠক করেন এবং এই নিয়ে  কি সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে তা তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপরেই ছেড়ে দেন।

তারপরেই কল্যাণী এবং পুরুলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় এই ফি মকুব করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। 

কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে,  যে কোনও বিভাগের পড়ুয়ার পরিবারের আয়ের উৎস বাবা অথবা মা করোনায় মারা গেলে তার উপযুক্ত প্রমাণপত্র সহ কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানালে তার পরীক্ষা ফি ছাড় দেওয়া হবে।  এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে থাকা সমস্ত কলেজের প্রিন্সিপালকেও আবেদন জানানো হবে পরীক্ষা ফি ছাড়ার জন্য। কলেজ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি পড়ুয়া পিছু যে অঙ্কের টাকা দিতে হয়, এই ক্ষেত্রে সেটাও ছাড় দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। কল্যাণী বিশ্ববিদ্যাল্যায়ের উপাচার্য মানসকুমার সান্যাল  জানিয়েছেন,  আগামী সোমবার থেকে নির্দেশিকা কার্যকর করার কথা বলা হয়েছে।

একই ভাবে করোনা পরিস্থিতিতে  আর্থিক কারণে পড়ুয়াদের সমস্যা যাতে না হয়, তার জন্য চলতি সেমিস্টারের ফি মকুব করেছে সিধো-কানহো-বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়। শনিবার বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এই কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার নচিকেতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যেসব পরিবার করোনার কারণে আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়েছে, চলতি সেমিস্টারে সেই পড়ুয়াদের কোনও ফি লাগবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সিদ্ধান্তে খুশি পড়ুয়া এবং খুশি শিক্ষক মহল। পুরুলিয়ার মতো পিছিয়ে পড়া এলাকায় স্থানীয় পড়ুয়াদের উচ্চশিক্ষায় আগ্রহী করে তুলতে এই সিদ্ধান্ত অত্যন্ত কার্যকর হবে বলে আশাপ্রকাশ করেছেন তাঁরা।

রাজ্যের আরও যে সব বিশ্ববিদ্যালয় আছে তারাও একই পথেই হাঁটতে চলেছে বলেও  জানা গিয়েছে। 

ads

Mailing List