নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন পুরুলিয়ার পানীয় জলের সমস্যা মেটাবেন, এবার প্রক্রিয়া শুরু মুখ্যমন্ত্রীর 

নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন পুরুলিয়ার পানীয় জলের সমস্যা মেটাবেন, এবার প্রক্রিয়া শুরু মুখ্যমন্ত্রীর 
19 Jun 2021, 03:33 PM

নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন পুরুলিয়ার পানীয় জলের সমস্যা মেটাবেন, এবার প্রক্রিয়া শুরু মুখ্যমন্ত্রীর 

 

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: এই বছর বিধানসভা ভোটের সময়, পুরুলিয়া জেলাতে, প্রচারে অন্যতম প্রধান ইস্যু হয়েছিল এই জেলার পানীয় জলের সমস্যা। 

এই জেলাতে প্রচার করতে এসে খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পানীয় জলের তীব্র সংকটের কথা তুলে ধরেন। পানীয় এবং সেচের জলের অভাবের জন্য আক্রমণ করেন রাজ্য সরকারকে।

এই জেলাতে পানীয় জলের সমস্যার কথা মেনে নিয়েও, ভোটের প্রচারে এসে, এই সমস্যা মেটানোর কথা শুনিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পুরুলিয়া জেলা খরা প্রবণ জেলা হিসাবে চিহ্নিত। এই জেলাতে প্রতি বছর দেখা যায় পানীয় জলের সমস্যা। গরমের  সময় তা আরও তীব্র হয়ে ওঠে।  জলের জন্য হাহাকার শুরু হয়। এক বালতি জল  পেতে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয় পুরুলিয়াবাসীকে। জলের দাবিতে বারে বারে রাস্তায় নেমে  বিক্ষোভও দেখিয়েছেন বাসিন্দারা। মহিলারাও।

এই বার ভোটের প্রচারে পুরুলিয়াতে এসে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন বিজেপি ক্ষমতায় আসার পরে এই সমস্যা মেটাবে। 

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও জানিয়েছিলেন  যে এই জলের  সমস্যা মেটানোর উদ্যোগ নেওয়া হবে।

রাজ্যে তৃতীয় বারের জন্য ক্ষমতায় এসেছে তৃনমূল কংগ্রেস। আবার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আর এবার, কথা রাখলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভোটপ্রচারে দেওয়া প্রতিশ্রুতি মতই মিটতে চলেছে পুরুলিয়া জেলার সাধারণ মানুষের পানীয় জলের সমস্যা। রাজ্যের জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দফতরের উদ্যোগে জেলায় শুরু হতে চলেছে নলবাহিত পানীয় জল সরবরাহের নয়া প্রকল্প।

জাপানি সংস্থা জাইকা ঋণ দিতে রাজি হওয়ায় শীঘ্রই শুরু হতে চলেছে এই প্রকল্প বলে জানা গিয়েছে প্রশাসন সূত্রে। তারা জানিয়েছেন, এই  কাজ সম্পূর্ণ হলে উপকৃত হবেন পুরুলিয়ার পাঁচটি ব্লক ও পুর এলাকার আট লক্ষেরও বেশি মানুষ।

জানা গিয়েছে, পাঁচ বছর ধরে জাপানি সংস্থা জাইকার সঙ্গে ঋণ নিয়ে আলোচনা চালাচ্ছিল রাজ্য সরকার। এমনকি প্রকল্পের কাজ শুরু না হওয়ায় ২০১৬-র বিধানসভা ভোটের আগে মুখ্যমন্ত্রীর রোষের মুখে পড়েন তৎকালীন মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়। প্রশাসনিক বৈঠকে রোষের মুখে পড়েন তিনি। অবশেষে ঋণ মঞ্জুর হওয়ায় মিলেছে স্বস্তি।

এবার শুরু হবে কাজ।

১ হাজার ২৯৬ কোটি টাকা ব্যয়ে অগস্ট মাস থেকে শুরু হবে এই প্রকল্পের কাজ। প্রকল্প রূপায়নে ৮৯৮ কোটি টাকা দেবে জাইকা। রাজ্য দেবে ২৯৮ কোটি টাকা এবং কেন্দ্র দেবে ১০৯ কোটি টাকা। দ্রুত কাজ শেষ করবে জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দফতর। জানা গিয়েছে, প্রকল্পের কাজ শেষ হলে জনপ্রতি দৈনিক ৭০ লিটার করে পানীয় জল সরবরাহ করা সম্ভব হবে। ফলে পুরুলিয়ার মানুষের জলকষ্ট দূর হবে।

ads

Mailing List