পুরুলিয়ায় পিটিয়ে মারা হয়েছে চোলাই মদ বিক্রির সঙ্গে যুক্ত আদিবাসী যুবককে ?

পুরুলিয়ায় পিটিয়ে মারা হয়েছে চোলাই মদ বিক্রির সঙ্গে যুক্ত আদিবাসী যুবককে ?
23 Feb 2022, 05:50 PM

পুরুলিয়ায় পিটিয়ে মারা হয়েছে চোলাই মদ বিক্রির সঙ্গে যুক্ত আদিবাসী যুবককে ?

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন :  এই মুহূর্তে রাজ্য উত্তাল হাওড়ায় আমতা এলাকার আনিস খানের মৃত্যু নিয়ে। আর এই আনিস কান্ড চলার সময়েই সামনে এল আরেকটি ঘটনা। অভিযোগ পুরুলিয়ার বাগমুন্ডি এলাকার এক আদিবাসী যুবককে পিটিয়ে মেরেছে আবগারী দফতরের লোকজন।

গত বুধবার বাগমুন্ডির চড়িদা গ্রামের কাছে রবিটি এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় শিকাড়ি মুড়া নামে বছর ২৬-র এক যুবককে। চোলাই মদ বিক্রি করার অভিযোগে তাঁকে গ্রেফতার করে আবগারি দফতর। তারপরে তাঁকে আদালতে তোলা হয়। জেল থেকে বেরিয়ে আসার পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। রবিবার তাঁকে ভর্তি করা হয় পুরুলিয়ার দেবেন মাহাত হাসপাতালে । সেখানেই মারা যান ওই যুবক। তার পরিবারের দাবি  , আবগারি দফতরের লোকজন মারধর করে শিকারিকে। তার ফলেই মারা যায় সে।তার মৃত্যু নিয়ে ক্ষোভে ফুসছে ওই এলাকার আদিবাসী সমাজের লোকজন।

এদিকে এই নিয়ে সরব হয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি এই ঘটনায় সিবিআই তদন্ত দাবিও করেছেন। টুইট করে তিনি লেখেন “এই মুহূর্তে রাজ্য উত্তাল একজন সংখ্যালঘু যুবকের মৃত্যুর তদন্ত ও সুবিচারের দাবিতে। পুলিশ হত্যা করেছে এবং প্রকৃত দোষীদের আড়াল করছে এইজন্যে মহানগরের রাস্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শন হচ্ছে। এমন দুর্ভাগ্যজনক ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে আমি ওর পরিবারের পাশে থেকে সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছি।” এই সঙ্গে তাঁর অভিযোগ  “কিন্তু এই ধরণের ঘটনা পশ্চিমবঙ্গের আনাচে কানাচে প্রতিনিয়ত ঘটছে, তবে সেই সকল সংবাদ শিরোনামের শীর্ষে উঠে আসে না। পুরুলিয়ার বাগমুন্ডির বাসিন্দা শিকারি মুড়া, একজন আদিবাসী যুবক, যাকে আবগারি দপ্তর গ্রেপ্তার করে হাজতের মধ্যে নির্মমভাবে অত্যাচার করে।”

শুভেন্দু লেখেন ,  “শারীরিক নির্যাতনের ফলে একজন তরতাজা যুবক অকালে প্রাণ হারালো। এবার কেউ রাস্তায় নামবে না? প্রতিবাদ সংগঠিত হবে না? নাকি "শিকারি মুড়া" নাম বলে সেই কৌলিন্যের রশ্মি তার প্রাপ্য নয়? আমি শিকারি মুড়ার হত্যার সুবিচারের জন্য CBI তদন্তের দাবি জানাই, যাতে উর্দিধারী খুনিদের সঠিক শাস্তি হয়।”

এদিকে আনিস কাণ্ডে গেফতার করা হয়েছে দুইজন পুলিশ কর্মীকে । গ্রেফতার হওয়া দুই পুলিশকর্মী হলেন আমতা থানার হোমগার্ড কাশীনাথ বেরা এবং সিভিক ভলান্টিয়ার প্রীতম ভট্টাচার্য। রাজ্য পুলিশের ডিজি মনোজ মালব্য বলেন '' ওই ঘটনা তদন্তের জন্য সিট  (SIT) করা হয়েছে। তারা  নিরপক্ষে তদন্ত করছে। তথ্যের ভিত্তিতে দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কিন্তু, সিটের কাজে বাধা দেওয়া হচ্ছে। আমাদের দক্ষ পুলিশ আধিকারিক মীরাজ খালিদ সারাদিন ঘটনাস্থলে ছিলেন। দ্বিতীয়বার ময়নাতদন্তের জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কিন্তু, সেই কাজে বাধা দেওয়া হচ্ছে। আমরা আশা করছি আগামী ১৫ দিনের মধ্যে এই ঘটনার সমস্ত সত্য তথ্য সকলের সামনে নিয়ে আসব।'' এই সঙ্গেই তিনি আনিসের পরিবারকে পুলিশের কাজে সাহায্য করার আবেদন জানিয়ে বলেন যে তারা নিশ্চয় সুবিচার পাবেন । 

Mailing List