প্রশাসক বসানোর পাল্টা জবাব, ঝালদায় পুরপ্রধান নির্বাচন করে ফেলল কংগ্রেস

প্রশাসক বসানোর পাল্টা জবাব, ঝালদায় পুরপ্রধান নির্বাচন করে ফেলল কংগ্রেস
03 Dec 2022, 09:30 PM

প্রশাসক বসানোর পাল্টা জবাব, ঝালদায় পুরপ্রধান নির্বাচন করে ফেলল কংগ্রেস

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: পুরুলিয়ার ঝালদা পুরসভা নিয়ে রাজ্য সরকার ও কংগ্রেস একেবারে সম্মুখ সমরে। যার ফলে নজিরবিহীন জটিলতা তৈরি হয়েছে ঝালদা পুরসভায়। এই পুরসভায় অচলাবস্থার জেরে সেখানে পুরবিধি মেনে নতুন চেয়ারম্যান নিয়োগ করেছে। দায়িত্ব পেয়েছেন ১০ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলর জবা মাছোয়াড়। তারপর ২৪ ঘন্টাও কাটল না। পালটা বিধি মেনে শনিবার পুরপ্রধান নির্বাচন করে ফেলল  কংগ্রেস। দায়িত্ব পেলেন নির্দল কাউন্সিলর শীলা চট্টোপাধ্যায়। এরপরই তাঁরা হুঁশিয়ারি দেন, পুরপ্রধান হিসেবে শীলা চট্টোপাধ্যায়ের কাজে কেউ বাধা দিলে আদালতের দরজায় যাওয়া হবে।

শনিবার কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন নির্দলের কাউন্সিলর সোমনাথ কর্মকার ও শিলা চট্টোপাধ্যায়ের স্বামী কালীপদ চট্টোপাধ্যায়। ঘটনার শুরু গত ১৩ অক্টোবর, সেদিন ঝালদার তৃণমূল পুরপ্রধান সুরেশ আগরওয়ালের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনে বিরোধীরা। ১২ আসনের পুরসভার পাঁচ কংগ্রেস কাউন্সিলর এবং একজন নির্দল কাউন্সিলর মিলিয়ে মোট ছ’জন অনাস্থা প্রস্তাব এনেছিলেন। ঠিক তারপরই শাসক দল ছাড়েন তৃণমূল কাউন্সিলর শিলা চট্টোপাধ্যায়। যিনি নির্দল প্রার্থী হিসাবে জিতে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। তাঁর দলত্যাগেই বদলে যায় গোটা পুরসভার সমীকরণ। ১২ আসনের পুরসভায় বিরোধী কাউন্সিলরের সংখ্যা বেড়ে হয় ৭। এরপরই আস্থা ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতার প্রমাণ করে দেয় বিরোধী শিবির। ফলে সরতে হয় পুরপ্রধানকে।

পুরপ্রধান নির্বাচনের জন্য বৈঠক ডাকেন উপ-পুরপ্রধান। কিন্তু বৈঠকের জন্য নির্দিষ্ট দিনেই ঝালদার তৃণমূল উপ পুরপ্রধান সুদীপ কর্মকারও ইস্তফা দেন। ফলে জটিলতা আরও বাড়ে। এরই মধ্যে ২৯ নভেম্বর তিন বিরোধী কাউন্সিলর পুরপ্রধান নির্বাচনের জন্য ৩ ডিসেম্বর শনিবার দিন ঘোষণা করে দেন। সেই মতো এদিন সাত কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে ঝালদার পুরপ্রধান পদে নির্বাচিত হলেন শীলা চট্টোপাধ্যায়। ইতিমধ্যে রাজ্য সরকার ওয়েস্ট বেঙ্গল মিউনিসিপাল অ্যাক্ট ১৯৯৩, সাব সেকশন ৪, অফ সেকশন ১৭ বিধি মেনে অস্থায়ী চেয়ারম্যান নিয়োগ করে। এদিন পুলিশি প্রহরায় ঝালদা পুরসভায় পুরপ্রধান নির্বাচনের পর জেলা কংগ্রেস সভাপতি নেপাল মাহাতো জানিয়ে দিয়েছেন, বিধি মেনে আমরা ঝালদায় পুরপ্রধান নিয়োগ করেছি। এখন যদিও কেউ তাঁর কাজে বাধা দেয় তাহলে আমরা আদালতে যাব।

Mailing List