পুরুলিয়ায় পুলিশকে গনধোলাই, ভাইরাল ভিডিও নিয়ে উত্তাল জেলা

পুরুলিয়ায় পুলিশকে গনধোলাই, ভাইরাল ভিডিও নিয়ে উত্তাল জেলা
14 Jan 2021, 07:54 PM

পুরুলিয়ায় পুলিশকে গনধোলাই, ভাইরাল ভিডিও নিয়ে উত্তাল জেলা

আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, পুরুলিয়া

এক ভাইরাল ভিডিও নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে পুরুলিয়ায়। এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে এক সাব ইন্সপেক্টারকে ঘিরে উত্তেজিত জনতা এলোপাথাড়ি কিল-চড়-ঘুষি মেরে চলেছে। এনিয়ে বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে গত মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে পুরুলিয়ার ঝালদা থানার মেশ্যা গ্রামে। একটি জমিতে বাড়ি তোলাকে কেন্দ্র করে ওই গ্রামে দুই পরিবারের মধ্যে ঝামেলা বাধে। বিষয়টি নিয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের হয়। এরপর পুলিশ গেলে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। যার জেরে প্রহৃত হন পুলিশ আধিকারিক।

এপ্রসঙ্গে আরও জানা গিয়েছে, মেশ্যা গ্রামের কুমুদ রঞ্জন তেওয়ারি ও তার ভাই অশ্বিনী তেওয়ারি গ্রামের মোড়ে ঝালদা- বাঘমুন্ডি রোডের উপর আবাস যোজনার পাওয়া ঘর নির্মান করছিলেন। এই নিয়েই বিরোধ লাগে আরেক গ্রামবাসীর সঙ্গে। বিষয়টি নিয়ে কুমুদ রঞ্জন তেওয়ারি বলেন, তাদের পৈতৃক জমির অংশীদারদের কাছ থেকে জামলহর গ্রামের পুরন্দর মাহাত কিছু জমি কিনেছেন। তবে তাঁরা যে জমিতে ঘর নির্মান করছিলেন, তা সেই বিক্রি হয়ে যাওয়া জমিতে নয়। তবু এদিন ঝালদা থানার সাব ইন্সপেক্টর হেমন্ত কুমার সাহাবাবু দুই জন সিভিক নিয়ে এসে নির্মানরত ঘরটি ভাঙতে শুরু করেন। বারন করা সত্বেও তিনি শোনেননি। উল্টে মারধর শুরু করেন। তারা কেউ পুলিশের উপর হাত তোলেননি বলে দাবি করেন তিনি। অন্যদিকে পুরন্দর মাহাতর পরিবাররের তরফ থেকে পালটা দাবী করে বলা হয়, যে প্লটে তারা জমি কিনেছেন সেই প্লটেই কুমুদ রঞ্জন তেওয়ারি ও তার ভাই অশ্বিনী তেওয়ারি নির্মাণ করছিল। বাধা দেওয়া সত্ত্বেও মানেনি তারা। তখন থানায় গিয়ে বিষয়টি জানান তারা।একজন সাব ইন্সপেক্টর সরেজমিন তদন্ত করতে আসেন। তখন তার উপর চড়াও হয় তেওয়ারি পরিবার। ঝালদা থানা সূত্রে জানা গেছে, দুটি পরিবারের ঝামেলার কারনে জমিটিতে ১৪৪ জারি ছিল। কাজ চলছে শুনে তদন্তে যান সাব ইন্সপেক্টর। সেখানে তেওয়ারি পরিবার জোর করে নির্মান কাজ চালাচ্ছেন দেখে বাধা দিতেই চড়াও হয় তারা। মারধর করে আধিকারিককে। এদিকে এই ঘটনায় কাঞ্চন তেওয়ারি ও আশীষবরন তেওয়ারিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Mailing List