স্ত্রীর জন্মদিন ভুললে জেলও হতে পারে! এমন আইনও রয়েছে দেশে, জেনে নিন

স্ত্রীর জন্মদিন ভুললে জেলও হতে পারে! এমন আইনও রয়েছে দেশে, জেনে নিন
28 Sep 2022, 08:30 AM

স্ত্রীর জন্মদিন ভুললে জেলও হতে পারে! এমন আইনও রয়েছে দেশে, জেনে নিন

 

আনফোল্ড বাংলা ডেস্ক: ভুলেও কিন্তু এই কাজটি করে বসবেন। প্রয়োজনে প্রতিদিন একবার করে মনে রাখার চেষ্টা করুন। নতুবা ক্যালেন্ডারে দাগ দিয়ে রাখুন। আর দিনের শুরুতেই ‘হ্যাপি বার্থডে’ বলে সম্বোধন করুন নিজের স্ত্রীকে। যাতে তিনি নিশ্চত হন যে, স্বামী তাঁর জন্মদিন ভোলেনি। নাহলেই বিপদ যেতে হতে পারে জেলেও।

হ্যাঁ, এটা কিন্তু আইন। যদি স্ত্রী পুলিশে গিয়ে অভিযোগ করেন, তাহলে আর রক্ষে নেই। স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে যাওয়ার অপরাধে স্বামীর জেল পর্যন্ত হতে পারে। এক্ষেত্রে শত চেষ্টা করে অভিমান ভাঙিয়েও রক্ষে পাবেন না। 

এমনই আইন রয়েছে দ্বীপরাষ্ট্র সামোয়া তে। মন ভোলানো দ্বীপে এমন কঠোর আইন শুনে একটু ঘাবড়ে যেতে পারেন। কিন্তু এটাই দস্তুর। স্ত্রীর জন্মদিন ভুলে যাওয়াটা অপরাধ হিসেবেই গণ্য করা হয় এই দেশে।

তবে প্রথমবার হলে অবশ্য কিছুটা রেহাই মিলতে পারে। সেক্ষেত্রে পুলিশ স্বামীকে বুঝিয়ে ছেড়ে দিতে পারে। কিন্তু ভবিষ্যতে ফের ভুললে তখন কিন্তু সোজা গরাদে। কিন্তু কেন হঠাৎ এমন আইন জারি হল। সে ব্যাপারে অবশ্য ব্যাখ্যা মেলেনি। 

এবার দেশটি সম্বন্ধে কিছু কথা জেনে নেওয়া যাক। দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরে অবস্থিত স্বাধীন দ্বীপরাষ্ট্র হল সামোয়া, এটি নিউজিল্যান্ডের প্রায় ২৯০০ কিমি উত্তর-পূর্বে অবস্থিত। রাষ্ট্রটি বহুদিন যাবৎ পশ্চিম সামোয়া নামে পরিচিত ছিল। ১৯৯৭ সালে এটির নাম সরকারীভাবে বদলে সামোয়া রাখা হয়। ১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষ থেকে ১৯৬২ সালে স্বাধীনতা লাভ পর্যন্ত সামোয়া জাতিসঙ্ঘের একটি ট্রাস্ট এলাকা ছিল, যার দেখাশোনা করত নিউজিল্যান্ড। রাষ্ট্রটির রাজধানী, বৃহত্তম শহর ও বাণিজ্যিক কেন্দ্রের নাম আপিয়া।

Mailing List