মালদায় স্ত্রীর গলা কেটে ধড় ও দেহ আলাদা করে দেওয়ার অভিযোগ, গ্রেপ্তার স্বামী

মালদায় স্ত্রীর গলা কেটে ধড় ও দেহ আলাদা করে দেওয়ার অভিযোগ, গ্রেপ্তার স্বামী
23 Sep 2022, 06:40 PM

মালদায় স্ত্রীর গলা কেটে ধড় ও দেহ আলাদা করে দেওয়ার অভিযোগ, গ্রেপ্তার স্বামী

 

নারায়ণ সরকার, মালদা

    

অর্ধনগ্ন অবস্থায় মাটিতে পরে রয়েছে দেহ। ধড় থেকে আলাদা মুন্ডু। সাতসকালে মহিলার দেহ ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের হবিবপুর থানার মঙ্গলপুরা অঞ্চলের নিরইল গ্রামে। ভোরবেলা পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দারা ওই ব্যক্তির বাড়ির সামনে চিৎকার শুনে তাদের বাড়িতে গিয়ে দেখেন বাড়ির উঠোনে মধ্যে পড়ে রয়েছে সাবিত্রী রায় নামে মহিলার দেহ। ধড় থেকে মুন্ডু আলাদা অবস্থায় পড়ে রয়েছে। প্রতিবেশীরা জানান, হঠাৎ সকাল বেলায় চিৎকার শুনে দেখতে পান অর্ধনগ্ন অবস্থায় মুন্ডুহীন দেহ রয়েছে একটি জায়গায়। তবে কি করে ঘটনা ঘটল তা বুঝে উঠতে পারছেন না কেউ। রাতে কোনও ঝামেলা বা কোনও গন্ডগোলের খবর পাননি।  ঘটনার পর তার স্বামীকে এলাকাবাসী আটকে রেখে খবর দেওয়া হয় হবিবপুর থানায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হবিবপুর থানার পুলিশ এবং তার স্বামী বাচ্চু টুডুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এই ঘটনা নিয়ে হবিবপুর থানা পুলিশ তদন্ত শুরু করে। মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য মালদা মেডিক্যাল ও কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

      পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘরের মধ্যে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। হবিবপুর থানার অন্তর্গত মঙ্গলপুরা অঞ্চলের নিরইল গ্রামে মৃত মহিলা সাবিত্রী রায়ের বাপের বাড়ি। তার স্বামীর বাড়ি করদহ এলাকায়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, পারিবারিক অশান্তির কারনে স্বামী এমনটা করে থাকতে পারে। বিশ্বকর্মা পুজোর সময় স্ত্রী বাপের বাড়িতে এসেছিল। সেখানেই স্বামী এসেছিল। তারপরই ঘটনাটি ঘটে। দম্পতির কোনও সন্তান ছিল না বলে জানা গিয়েছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Mailing List