সুস্বাস্থ্য পরিমাপ করতে কীভাবে করবেন 'ব্যালেন্স টেস্ট', জেনে নিন কি বলছেন বিশেষজ্ঞরা

সুস্বাস্থ্য পরিমাপ করতে কীভাবে করবেন 'ব্যালেন্স টেস্ট', জেনে নিন কি বলছেন বিশেষজ্ঞরা
23 Jun 2022, 04:26 PM

সুস্বাস্থ্য পরিমাপ করতে কীভাবে করবেন 'ব্যালেন্স টেস্ট', জেনে নিন কি বলছেন বিশেষজ্ঞরা

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: একজন মানুষের গড় আয়ু কত হতে পারে, এই সমীক্ষা করতে গিয়ে দেখা গিয়েছে, এক পায়ে দাঁড়ানোর দক্ষতার উপরই নির্ভর করতে পারে একজন ব্যক্তির আয়ু। ওই স্টাডিতে দেখা গিয়েছে, যে সকল ব্যক্তি একাটানা ১০ সেকেন্ডে এক পায়ে খাড়া হতে অসমর্থ হন তাঁদের আগামী দশ বছরের মধ্যে মৃত্যুর আশঙ্কা থাকে দ্বিগুণ।

ব্রিটিশ জার্নাল অব স্পোর্টস মেডিসিনে প্রকাশিত ওই গবেষণা অনুসারে, যে সমস্ত মানুষ অন্তত ১০ সেকেন্ড একপায়ে দাঁড়িয়ে থাকতে পারেন না তাঁদের যে কোনও কারণে অকালে প্রাণহানির আশঙ্কা থাকে। গবেষকদের পরামর্শ, নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কে জানতে নিয়মিত এই 'ভারসাম্যের পরীক্ষা' করুন। এই অভূতপূর্ব সমীক্ষাটি গত ১২ বছর ধরে ৫১ থেকে ৭৫ বছর বয়সি ১৭০২ জন ব্যক্তির উপর করা হয়েছে। অর্থাত্‍ সেই ২০০৮ সাল থেকে ২০২২ সাল পর্যন্ত ওই ব্যক্তিরা ছিলেন ব্যালেন্স টেস্ট স্টাডির আওতাধীন। 

সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের একপায়ে দাঁড়িয়ে অন্য পায়ের ডিমের উপর অপর পায়ের চেটো স্পর্শ করতে বলা হয়েছিল। দুই পা অদলবদল করে এভাবে তিনবার একপায়ে দাঁড়ানোর সুযোগ দেওয়া হয়েছিল তাঁদের। গবেষকরা জানাচ্ছেন, বয়স, লিঙ্গ এবং অন্যান্য শারীরিক অবস্থার বিষয়গুলি মাথায় রেখে করা এই সমীক্ষা থেকে বেরিয়ে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। তাঁরা জানাচ্ছেন, একপায়ে কোনও সহায়তা ছাড়া ১০ সেকেন্ড দাঁড়াতে অকৃতকার্য হওয়ার অর্থ প্রাণহানির অকালে আশঙ্কা বাড়ছে।

বিশেষজ্ঞরা এও জানাচ্ছেন, স্বাস্থ্য ভালো রাখতে শারীরিক ভারসাম্য রক্ষার বিবিধ ব্যায়াম করা উচিত। কারণ যতবারই কোনও ব্যক্তি একপায়ে দাঁড়িয়ে কোনও শারীরিক ভঙ্গিমা করবেন, ততবারই তা ব্রেনের কাছে কাছে শারীরিক ভারসাম্য রক্ষার অঙ্ক কষার নতুন সুযোগ এনে দেবে। ফলে ব্রেনের নিউরোনের মধ্যে নতুন যোগাযোগ তৈরি হবে। সেইসঙ্গে কান, চোখ, অস্থিসন্ধি ও পেশির মধ্যে যোগাযোগ আরও দৃঢ় হতে থাকবে।

সুস্বাস্থ্য পরিমাপ করার পক্ষে 'ব্যালেন্স টেস্ট' সবচাইতে উপরের সারিতে উঠে আসে। ওই পরীক্ষার ১৩ বছর পরে দেখা যায় যে সকল ব্যক্তি ২ সেকেন্ডর বেশি দাঁড়াতে পারেননি তাঁদের তিনগুণ বেশি আগে মৃত্যু হয়েছে। অতএব গবেষণার সারমর্ম হল, যার যত ভালো শারীরিক ভারসাম্য বজায় থাকবে, তিনি তত বেশিদিন সুস্থভাবে জীবনযাপন করতে পারবেন। আয়ুও বাড়বে।

ads

Mailing List