ব্লু ফিল্ম যৌন জীবনে কতটা ক্ষতি ডেকে আনে? গবেষণা বলছে, উত্থানক্ষমতা হারায় পুরুষ

ব্লু ফিল্ম যৌন জীবনে কতটা ক্ষতি ডেকে আনে? গবেষণা বলছে, উত্থানক্ষমতা হারায় পুরুষ
21 Sep 2022, 12:15 PM

ব্লু ফিল্ম যৌন জীবনে কতটা ক্ষতি ডেকে আনে? গবেষণা বলছে, উত্থানক্ষমতা হারায় পুরুষ

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: স্মার্টফোনে এখন সবকিছুই সহজলভ্য। একসময় যে নীলছবির দেখা মিলত কষ্টেসৃষ্টে, স্মার্টফোনে এখন তা-ই হাতের মুঠোয়। তাই বহু মানুষ এখন সুযোগ পেলেই এক লহমায় ডুবে যান ‘নিষিদ্ধ’ দুনিয়ার অন্দরে। তাঁদের অবদমিত অতৃপ্ত লিবিডোকে সেখানে অক্সিজেন জোগায় ইন্টারনেটের লাখো লাখো পর্ন সাইট। কিন্তু এই অবাধ পর্ন-সাইট দর্শন কিন্তু আখেরে বিপদ ডেকে আনছে বিশ্বের বহু পুরুষেরই। লন্ডনের এক সাম্প্রতিক সমীক্ষা-রিপোর্ট বলছে, নীলছবির মধ্যে ডুবে থাকছেন যাঁরা, তাঁরা উত্থানক্ষমতা হারাচ্ছেন। প্রয়োজনের সময়ে যথেষ্ট সাড়া দিতে পাৱছেন না তাঁরা। ফেটে পড়তে পারছেন না তুরীয় উত্তেজনার আনন্দে। ফলে দিনের পর দিন বিছানার খেলায় গো-হারান হেরে যেতে হচ্ছে তাঁদের। শুধুমাত্র এই কারণেই দুনিয়াজুড়ে অকালে মুখ থুবড়ে পড়ছে অজস্র দাম্পত্য।

 

ভাবিয়ে তোলার মতো এই রিপোর্টটি প্রকাশ করেছে লন্ডনের নিউম্যান ক্লিনিক। তাদের বক্তব্য, ইংল্যান্ডের প্রায় ৮০ ভাগ পুরুষেরই যথাযথ উত্থানক্ষমতা নেই। সঠিক সময়ে সঠিক দৃঢ়তার অভাবে সমস্যায় পড়ছেন তাঁরা। এর কারণও উঠে এসেছে ওই সমীক্ষায়। রিপোর্ট বলছে, মদ্যপান এবং মাত্রাতিরিক্ত নীলছবি দেখার ফলেই সমস্যাটি প্রকট আকার ধারণ করেছে। যখন-তখন নীলছবি দেখার ফলে তাঁদের উত্তেজনার স্তরটি স্বাভাবিকের চেয়ে বাড়তি উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছে। নীলছবিতে তাঁরা এমন অনেক কিছুর আস্বাদ পাচ্ছেন, যা বাস্তবে স্ত্রী বা সঙ্গিনীর কাছে পাচ্ছেন না। ফলে যৌনটানে ঘাটতি থেকে যাচ্ছে তাঁদের। সেই কারণেই কামঘন মুহূর্তেও নমনীয়ই থেকে যাচ্ছে তাঁদের পুরুষাঙ্গ। যার পরিণামে শয্যাসুখে অতৃপ্ত থেকে যাচ্ছেন বহু আপাতসুখী দম্পতি।

 

সম্প্রতি ‘ডেইলি মেল’-এ প্রকাশিত একটি নিবন্ধে উল্লেখ করা হয়েছে ‘মার্কেট রিসার্চ সোসাইটি’র একটি সমীক্ষার কথা। তারা বিভিন্ন পেশার এক হাজার পুরুষের সাক্ষাৎকার নিয়েছিল, যাঁদের সকলেই ইন্টারনেটে নীলছবি দেখতে অভ্যস্ত। দেখা গিয়েছে, তাঁদের মধ্যে ৮০ জনই খুশি করতে পাৱছেন না তাঁদের সঙ্গিনীকে। যার কারণ হিসেবে সকলেই দায়ী করেছেন নিজেদের ইরেকটাইল ডিসফাংশন অর্থাৎ লিঙ্গের উত্থানহীনতাকে। লন্ডনের নিউম্যান ক্লিনিক-এর এক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, নীলছবি বেশি দেখলে কিন্তু বাস্তবে যৌনসুখ পাওয়ার জন্য ছটফট করতে হবে। একইসঙ্গে তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, যৌন উত্তেজনায় ঘাটতি থাকলে বীর্যে শুক্রাণুর সংখ্যাও আনুপাতিক হারে কমবে। ফলে পিতৃত্ব লাভের সম্ভাবনাও কমবে পাল্লা দিয়েই।             

Mailing List