কোনদিন নাকি এক টাকাও ঋণ নেননি, অথচ তাঁর ঘাড়ে ঋণের বোঝা এক কোটি টাকা! ঘটনায় হতবাক বর্ধমানের ব্যবসায়ী

কোনদিন নাকি এক টাকাও ঋণ নেননি, অথচ তাঁর ঘাড়ে ঋণের বোঝা এক কোটি টাকা! ঘটনায় হতবাক বর্ধমানের ব্যবসায়ী
28 Apr 2022, 08:30 AM

কোনদিন নাকি এক টাকাও ঋণ নেননি, অথচ তাঁর ঘাড়ে ঋণের বোঝা এক কোটি টাকা! ঘটনায় হতবাক বর্ধমানের ব্যবসায়ী

 

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান

 

তিনি কখনও নাকি ঋণ নেননি। অথচ, বেসরকারি ফাইন্যান্স কোম্পানিতে তাঁরই নামে এক কোটি টাকা ঋণের বোঝা!

এমনই ঘটনা ঘটল পূর্ব বর্ধমান জেলায়। ব্যবসায়ী একরাম শেখ এর ক্ষেত্রে। ঘটনার সুবিচার পেতে পূর্ব বর্ধমানের গুসকরার এই ব্যবসায়ী ওই সংস্থার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।  

 

কিন্তু কিভাবে তিনি জানতে পারলেন তাঁর নামে এত টাকা ঋণের বোঝা? তাঁর দাবি, ২০১৯ সালে বর্ধমানের একটি ফাইন্যান্স কোম্পানিতে গাড়ি কেনার জন্য তিনি ঋণ নিতে যান। তখনই তাঁর নথি পরীক্ষা করতে গিয়ে ধরা পড়ে ঋণের কথা। তা জানতে পেরে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায়। তিনি বলেন, ‘‘ওই সময় আমি জানতে পারি আমার নামে ১৯ লক্ষ ৪৩ হাজার ১৭৯ টাকা ঋণ নেওয়া হয়েছিল ২০১৪ সালে! আমি যদি ঋণ নিতাম তাহলে তো আমাকে যাবতীয় নথি জমা দিতে হত। কিন্তু আমি কিছুই দিইনি। কোথাও সইও করিনি। তাহলে এত টাকা ঋণ কিভাবে হল? কে নিল সেই টাকা?’’  

 পাশাপাশি তিনি এও  জানতে পারেন ২০১৪ সালের ঋণ নেওয়া টাকার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে এখন প্রায় ১ কোটির কাছাকাছি। আর তা জানতে পেরেই তিনি ওই সংস্থাকে চিঠি দিয়ে বিষয়টি জানতে চান। তাঁর আইনজীবীও ওই সংস্থার পূর্ব বর্ধমানের অফিস থেকে শুরু করে মুম্বইয়ের হেড অফিসে চিঠি পাঠান। অভিযোগ, ওই সংস্থার পক্ষ থেকে কোনও জবাব আসেনি।

একরাম শেখের আইনজীবী সৌরভ রায় বলেন, চিঠি করা হলেও ওই কোম্পানি কোনও উত্তর দেয় নি। এবার একরাম সেখ ওই কোম্পানির বিরুদ্ধে ক্রিমিনাল কেস করবেন।

 গোটা বিষয়টি নিয়ে যদিও মুখে কুলুপ এঁটেছে অভিযুক্ত ফাইনান্স কোম্পানি। ফাইনান্স অফিসে  ম্যানেজারের প্রতিক্রিয়া নিতে গেলে তিনি সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে দেখা করতে চাননি। এমনকি মোবাইলে বেশ কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন তোলেন নি।

ads

Mailing List