চার বছর পর অবশেষে খুনের দায়ে দোষীর যাবজ্জীবন   

চার বছর পর অবশেষে খুনের দায়ে দোষীর যাবজ্জীবন   
28 Jan 2021, 05:11 PM

চার বছর পর অবশেষে খুনের দায়ে দোষীর যাবজ্জীবন   

আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়, পুরুলিয়া

ঘুমন্ত অবস্থায় প্রতিবেশী যুবককে কুপিয়ে খুন করেছিল। অবশেষে চার বছর পর দোষীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিল পুরুলিয়ার রঘুনাথপুর মহকুমা আদালত। এদিন মহকুমা আদালত তথা অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা বিচারক চিন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের এসলাসে মামলাটির রায় ঘোষণা করা হয়।  

সরকার পক্ষের আইনজীবী শিশির কুমার রায় জানিয়েছেন, ২০১৬ সালের ৪ জুন রাতে পুরুলিয়ার কাশীপুর থানার মধাপাতোড়া গ্রামের বাসিন্দা গুরুচরণ মাহাতোকে ঘুমন্ত অবস্থায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করে তাঁর প্রতিবেশী গুরুপদ মাহাতো। সে এদিন গভীর রাতে ছাদের সিঁড়ি দিয়ে উঠে গুরুচরণ মাহাতোর বাড়িতে ঢোকে গুরপদ।  

ঘুমন্ত অবস্থাতেই গুরুচরণকে একাধিকবার ধারালো অবস্থায় কোপাতে থাকে সে। খুনের সময় মুখে ও মাথায় কাপড় বেঁধে রেখেছিল গুরুপদ। চিৎকার চেঁচামেচি শুনে পাশের বাড়ি থেকে ছুটে আসে গুরুচরণের দিদি রানুবালা মাহাতো ও মা ফুলু মাহাতো। এরপর তারা গুরুচরণকে বাঁচানোর চেষ্টা করে। তাতে ধস্তাধস্তিতে মুখের কাপড় খুলে যায় গুরুপদর তারা প্রতিবেশী যুবক গুরুপদ মাহাতোকে চিনতে পেরে যায় ও চিৎকার চেঁচামেচি শুরু করে।

তাদের চিৎকার চেঁচামেচি শুনে পাড়া প্রতিবেশীরা ছুটে আসতেই গুরুপদ মাহাতো সেখান থেকে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে কাশীপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ও রক্তাক্ত অবস্থায় গুরুচরণ মাহাতোকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এরপরই কাশীপুর থানার পুলিশ অভিযুক্ত গুরুপদ মাহাতোকে গ্রেফতার করে ও আদালতে তোলে।

দীর্ঘদিন ধরে মামলাটি চলার পর মোট ২৩জন স্বাক্ষীর নেওয়ার পর বুধবার ঘটনায় অভিযুক্ত গুরুপদ মাহাতোকে বিচারক দোষী সাব্যস্ত করে ও বৃহস্পতিবার তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন বিচারক। যদিও সাজাপ্রাপ্তের পরিবার জানিয়েছে এই রায়ের বিরুদ্ধে তারা উচ্চ আদালতে যাবে।

ads

Mailing List