মৌমিতা দাসের গুচ্ছ কবিতা

 মৌমিতা দাসের গুচ্ছ কবিতা
12 Jul 2020, 10:45 AM

 মৌমিতা দাসের গুচ্ছ কবিতা

 

পর্থেনিয়াম বাগান থেকে

 

এই যে তুমি হাত টা ছেড়ে বেশ কিছু টা এগিয়ে গিয়ে রাস্তা বদলাও।

আর তোমার পায়ের নিচে অবহেলায় দলিত হয় বর্ষা শেষের রাধাচূড়া...

বাদাম খোসার মত রোদ আমার আঁচলে পড়ে আছে,

জানি তুমি আসবে না।

আসার কথা ও ছিল না কোনোদিন।

বিপর্যয় এ ভাঙ্গা গাছের নিচে পড়ে আছে নিষিদ্ধ পার্থেনিয়াম।

তবু সতেজ সাদা ফুল।

এমন কত জীবন বেঁচে আছে তোমার অবহেলায়।

তুমি টের পাওনা।

অনুভব কর না।

না করার ই কথা।

আমার পদ্য খাতা তো ভারী শব্দে ভরা নয়।

তাই হয়তো তুমি অবহেলায় বাঁচিয়ে রাখ আমার নির্যাস টুকু।

.................

 

গলে যাওয়া রাত থেকে

 

যেটুকু রাত ভালোবাসতে বাকি ছিল,

সেটাও গলে যায় চাঁদের মতো।

বলা হয়ে গেছে সব তাই কবিতা লিখি না আর।

এমন মৃত্যু তো ভালই জীবনের চেয়ে..

জাম রঙ জল ঝরে পড়ে নতুন পোশাক ভিজে..

ক্ষয়ে যাওয়া রঙ তাই ঝরে যেতে হয় রোজ।

বেঁচে যাওয়া শেষ হল জানি

অবিরাম বাঁচার তাগিদে তবু -

বেঁচে যাই রোজ রোজ অকারণে..

......................

 

বৃষ্টি ও ছাতিম বিষয়ক

 

শীতের শহরে বৃষ্টি নেমেছে সুখে

যে সুখে রাধার মান কুল সব যায়

কেউ কোনো দিন টের ও পাবেনা দেখো।

আমরা দুজন ভিজব আলাদা ফোঁটায়।

 

অথচ ভিজব একটি সুখের জলে।

পৌষের রাত গুজবে দিও না কান।

তোমার শহরে বৃষ্টি নামলে জেনো।

ছাতিম লুটাবে, আমি হব বদনাম

..................

 

অন্ত মিলে ভালো লাগা

 

বুঝেছি এখনো উল্কা পড়েনি খসে

অনেক তারার জ্বলতে পারা টা বাকি।

অবাক হলাম বিকেল সাক্ষী রেখে,

আমাদের শুধু সময় দিয়েছে ফাঁকি।

 

এখনো তোমার গলার শব্দে দেখো।

চমকে উঠলো আমার সাজানো নাটক।

আচমকা সেই আগের মতোই আজ ও

আমাকে কাঁদিয়ে সুখের বিকেল আঁকো

 

 

নামহীন ঝিল সাক্ষী থেকেছে জানো,

ফেলে রেখে আসা প্রতিটা ভোরের খোঁজ।

তুমিও ভুলেছ আমিও ভুলেছি দেখো।

কেমন করে বেঁচেছি গেছি মরে রোজ।

 

আমার উঠোনে সন্ধ্যা তারা রা জানে,

কোন আগাছার নাম রেখেছি সুখে।

এখনো তো রোজ ঘুন ধরে যাওয়া রাত

কাটাতে পারব তোমার লোমশ বুকে।

Mailing List