জাতীয় সড়কে বেপরোয়া গতিতে চলা ট্রাকের বলি চারজন  

জাতীয় সড়কে বেপরোয়া গতিতে চলা ট্রাকের বলি চারজন  
24 Feb 2021, 09:01 PM

জাতীয় সড়কে বেপরোয়া গতিতে চলা ট্রাকের বলি চারজন   

 

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান

লোকজন দাঁড়িয়ে ছিলেন জাতীয় সড়কের ধারে। বাস ধরার জন্য। সেই সময়ে বেপরোয়া গতিতে ট্রাক পিষে দিয়ে গেল তাঁদের। বাস ধরার জন্য দাঁড়িয়ে থাকার সময়ে এই দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে চার জনের। মৃতদের মধ্যে আছেন এক মহিলাও। বুধবার বিকাল পাঁচটা নাগাদ ভয়াবহ এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের মেমারি থানার পালসিট স্টেশনের উল্টোদিকে ২ নম্বর জাতীয় সড়কে।

দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হয়ে রাস্তায় পড়ে কাতরাতে থাকা ৭ জনেকে উদ্ধার করে পুলিশ ও স্থানীয় মানুষজন নিয়ে যান বর্ধমানের অনাময় সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। তাদের মধ্যে তিনজনের শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক থাকায়  স্থানান্তর করা হয়েছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে।

কয়েক দিনের ব্যবধানে ২ নম্বর জাতীয় সড়কে বেপরোয়া গতির বলি হয়েই চলেছেন সাধারন মানুষ। এদিনের দুর্ঘটনায় চার জনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই পালসিট এলাকায় বিক্ষোভ ছড়ায়। পথ অবরোধ করেন বাসিন্দারা। এসডিপিও আমিনুল ইসলাম খান সহ অন্য পুলিশ কর্মী সেখানে এলে তাদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখান মানুষজন । এসডিপিও বেপরোয়া গতিতে চলা যানবাহনের গতি নিয়ন্ত্রণের আশ্বাস দিলে বিক্ষোভকারীরা শান্ত হন। 

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতরা হলেন রিপন মণ্ডল(২০), অনিমেষ রায় (২২), বিকাশ শর্মা (৫৫)। মৃত মহিলার  নাম এখনও জানতে পারেনি পুলিশ। তবে মৃতরা বড়শুল,পালসিট ও সরাইটিকর এলাকার বাসিন্দা বলে পুলিশ জানতে পেরেছে।

এসডিপিও আমিনুল ইসলাম খান জানায়েছেন, “ বুধবার বিকালে পালসিট স্টেশনের উল্টোদিকে বর্ধমানগামী জাতীয় সড়কের ধারে বাস ধরার জন্য দাঁড়িয়ে ছিলেন ১১জন যাত্রী। বর্ধমানগামী একটি খালি ট্রাক নিয়ন্ত্রন হারিয়ে রাস্তার ধারে দাঁড়িয়ে থাকা যাত্রীদের পিষে দিয়ে চলে যায়। এই দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত এক মহিলা সহ চার জনের মৃত্যু হয়েছে।”

জাতীয় সড়কে নিয়ন্ত্রনহীনভাবে, অতিরিক্ত গতিতে ট্রাক সহ অন্যান্য যানবাহন চলাচল করে এবং এই কারণে জাতীয় সড়কের ওপর দুর্ঘটনা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

পুলিশ আধিকারিকরা জানিয়েছেন, জাতীয় সড়কের ওপর যে সব যানবাহন চলাচল সেগুলি যাতে নিয়ম মেনেই চলে এবং তাদের গতি নিয়ন্ত্রণে থাকে তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাশাপাশি ঘাতক ট্রাকটির খোঁজ চালানো হচ্ছে  বলে এসডিপিও জানিয়েছেন।

Mailing List