বাবা পেশায় সবজি বিক্রেতা, ছেলের জাতীয় যোগাসনে পাঁচটি স্বর্ণপদক জয়

বাবা পেশায় সবজি বিক্রেতা, ছেলের জাতীয় যোগাসনে পাঁচটি স্বর্ণপদক জয়
24 Nov 2022, 08:18 PM

বাবা পেশায় সবজি বিক্রেতা, ছেলের জাতীয় যোগাসনে পাঁচটি স্বর্ণপদক জয়

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: আর্থিক সমস্যাকে দূরে সরিয়ে লড়াই করছে কোন্নগরের সোমনাথ মুখোপাধ্যায়ের। দিন আনা, দিন খাওয়ার সংসার। বাবা বাজারে সব্জি বিক্রি করেন। তৃতীয় শ্রেণীতে পড়ার সময় দিদিমার হাত ধরে যোগাসন শেখা শুরু। জাতীয় যোগাসনে পাঁচটি স্বর্ণপদক জয় সোমনাথের। এ বার সোমনাথের লক্ষ্য, থাইল্যান্ডে আন্তজার্তিক প্রতিযোগিতায় যাওয়া। আর্থিক সমস্যার জন্য এর আগেও আন্তর্জাতিক স্তরের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারেননি।  

১৪ থেকে ১৬ই নভেম্বর হরিয়ানায় অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় যোগাসন প্রতিযোগিতা। সেখানেই পাঁচটি ইভেন্টে নেমে পাঁচটি স্বর্ণ পদক এবং চ্যাম্পিয়ন অফ চ্যাম্পিয়নস-ও হয় সোমনাথ। মামার বাড়িতে থাকার সুবাদে দিদিমা সোমনাথকে স্থানীয় এক ক্লাবে নিয়ে গিয়ে ভর্তি করেন।সেই শুরু ছোট থেকেই যোগাসন করতে ভালবাসেন বিএ প্রথম বর্ষের ছাত্র সোমনাথ। কোন্নগরে এক কামরার মামার বাড়িতে থাকেন সোমনাথরা। সেই ঘরও তার পুরস্কারে ভরে গিয়েছে।

পড়াশোনার পাশাপাশি যোগাসন করে আগামী দিনগুলি গড়তে চায় সোমনাথ। এর আগেও একবার আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় বিদেশে যাওয়ার সুযোগ পেয়েও হাতছাড়া হয়েছে অর্থের অভাবে। তাঁর মা রিঙ্কু মুখোপাধ্যায় বলেন, "ছেলের ভবিষ্যত নিয়ে ভাবনা আছে। হরিয়ানায় খেলতে গেল সুদে টাকা ধার নিয়েছিলাম।থাইল্যান্ডে যেতে সরকারি সাহায্য পেলে ভাল হয়।" কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান স্বপন দাস বলেন, "শুনেছি ভাল যোগাসন করেন ছেলেটি। আমার শহরের গর্ব। অনেক পদক পেয়েছেন। আগামী দিনে ওর পাশে থাকার চেষ্টা করা হবে পুরসভা থেকে।"

Mailing List