দুদিনে দশ লাখ কিউসেক জল ছেড়ে ‘ ক্রিমিনাল ক্রাইম’ করেছে ডিভিসি,  ক্ষুব্ধ মমতা

দুদিনে দশ লাখ কিউসেক জল ছেড়ে ‘ ক্রিমিনাল ক্রাইম’ করেছে ডিভিসি,  ক্ষুব্ধ মমতা
02 Oct 2021, 07:25 PM

দুদিনে দশ লাখ কিউসেক জল ছেড়ে ‘ ক্রিমিনাল ক্রাইম’ করেছে ডিভিসি,  ক্ষুব্ধ মমতা

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন : অতি বৃষ্টি বাংলাকে ভাসাতে পারেনি। রাজ্যে আবার যে বন্যা পরিস্থিতি হয়েছে, যে ভাবে রাজ্যের একটি বড় অংশ পুজার আগে প্লাবিত  হয়েছে তার জন্য ডিভিসিকেই দায়ী করলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

ডিভিসি-কে নিশানা করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''যেভাবে এবার জল ছাড়া হয়েছে তা বড় অপরাধ। এক সঙ্গে এত জল ছাড়া হয়েছে যা জীবনে কখনও হয়নি। আগে হয়েছে কিনা জানি না। দুদিনে প্রায় ১০ লাখ কিউসেক জল ছাড়া হয়েছে।  তারজন্যই হাওড়ার উদয়নারায়ণপুর, হুগলির আরামবাগ, পূর্ব বর্ধমানের আউশগ্রাম,  পশ্চিম বর্ধমানের আসানসোল, পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুরের ঘাটাল, বাঁকুড়ার সোনামুখী, বীরভূমের নানুর সহ বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে।’

শনিবার, আকাশপথে বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনের পর সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে আরামবাগে পৌঁছন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আরামবাগের সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা কালিপুরে পৌঁছয় মমতার কনভয়। সেখানেও  'ম্যান মেড বন্যা'র তত্ত্বে অনড় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন,  “আমাদের কিছু না জানিয়েই জল ছাড়া হয়েছে। গত ৩০ সেপ্টেম্বর মধ্যারাত থেকে শুরু হয়েছে জল ছাড়া। । রাজ্যকে না জানিয়েই এত জল ছাড়া হয়েছে।”

ডিভিসির ছাড়া জলে রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে 'ম্যান মেড ফ্লাড'  শব্দবন্ধে ফের কেন্দ্র ও ডিভিসি-কে আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এই কথা নিয়ে তাঁর সমালোচনা করেছে বিজেপি।

আর মুখ্যমন্ত্রী , “ম্যান মেড ফ্লাড আমিই আগে বলতাম। রেলমন্ত্রী থাকাকালীন দেখেছিলাম ফরাক্কা দিয়ে যাওয়ার সময় একটা ট্রেন হঠাৎ করে জলে ভর্তি হয়ে গেল। ট্রেনকে দড়ি বেঁধে আনতে হয়েছিল। তখন রেলের অফিসারদের জিজ্ঞেস করলাম হঠাৎ এত জল এল কোত্থেকে? ওরা আমায় উত্তর দিয়েছিল, এটা ম্যান মেড ফ্লাড। জল ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। সেই জলে ডুবে গিয়েছে। সেই থেকে এটা জানতাম।”  তিনি বলেন,  “সেদিনও অনেকে আমার সমালোচনা করেছিলেন। আজকে বলছি, ইয়েস, ইট ইজ ম্যান মেড ফ্লাড।”  

এদিন, নবান্নে বৈঠক করার পরে তিনি  দাবি করেন,  বাংলায় বন্যা নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে রাজ্য সরকার। ভারী বৃষ্টিতে কলকাতা ও আসানসোলে জল জমলেও তা একদিনে নেমে গিয়েছে বলে।

ডিভিসি-কে বিঁধে তিনি বলেন, “আমরা সাড়ে ৩ লক্ষের উপর পুকুর কেটেছি। সাড়ে ৫০০  কোটি খরচ করে চেকড্যাম করেছি । সেখানেই এই বৃষ্টির জল আশ্রয় নিয়েছে।  আর  জল ছেড়ে একটা বছরে চারবার ফ্লাড করে দিয়েছে। দু'বছরে চার-পাঁচটি ঘূর্ণিঝড় সামলেছি। ডিভিসি যেভাবে জল ছেড়েছে  এটা একটা বড় অপরাধ। এই  ছাড়া আর কী হতে পারে? আগে থেকে কেন কথা বলে জল ছাড়ছ না? যে-ই ঝাড়খন্ডে বৃষ্টি হচ্ছে সব জলটা বাংলায় ছেড়ে দিচ্ছে। ঝাড়খন্ড আমাদের বন্ধু রাজ্য। আমরা অনুরোধ করছি বাঁধগুলি সংস্কার করুন। জল ছেড়ে আমাদের লোকেদের মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেবেন না।''

ডিভিসি-র কাছ থেকে  এবার ক্ষতিপূরণ চাওয়া হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “ডিভিসি প্রতিবার জল ছেড়ে ডোবাবে। কেন বাঁধ মেরামত করবে না? কেন ড্রেজিং করবে না? আসানসোল, কলকাতায় জল নেমে গিয়েছে। আমরা এবার ঠিক করেছি ক্ষতিপূরণ চাইব।'' 

ডিভিসি-র বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিতে চলেছেন মমতা। তিনি বলেন ,'' ডিভিসি কেন্দ্রের অধীনে।  আমরা কেন্দ্রকে বলব ডিভিসির ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হোক। অনেকবার চিঠি লিখেছি প্রধানমন্ত্রীকে। ঘাটাল মাস্টারপ্ল্যান নিয়ে সেচ দফতরের দল দেখা করে এসেছে। প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখব। প্রধানমন্ত্রীকে আবেদন করব, প্লিজ টেক সিরিয়াস কেয়ার।”

প্রায় ৫ লাখ মানুষকে সরিয়ে নিয়ে আসা হয়েছে বলে জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ সামনেই পুজা, উৎসব। এখন মানুষ উৎসব করবে না ডিভিসির জন্য গরু মোষ বাড়ির সব কিছু নিয়ে জলে দাঁড়িয়ে থাকবে?”

 

 

ads

Mailing List