মেঘালয়ের বন থেকে নতুন প্রজাতির বাদুড় আবিষ্কার

মেঘালয়ের বন থেকে নতুন প্রজাতির বাদুড় আবিষ্কার
19 Jun 2022, 12:00 PM

মেঘালয়ের বন থেকে নতুন প্রজাতির বাদুড় আবিষ্কার

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: মেঘালয়ের বন থেকে একটি নতুন প্রজাতির বাদুড় আবিষ্কার করলেন জুলজিকাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার (জেডএসআই) বিজ্ঞানীরা। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রকের জেডএসআই এর পরিচালক ডঃ ধৃতি বন্দ্যোপাধ্যায় শনিবার এই খবর জানান।  জেডএসআই-এর বিজ্ঞানী ড. উত্তম সাইকিয়া এবং হাঙ্গেরিয়ান ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামের ডা. গাবর সোর্বা এবং জেনেভার ন্যাচারাল হিস্ট্রি মিউজিয়ামের ড. ম্যানুয়েল রুইডির সঙ্গে জেডএসআই-এর একজন বিজ্ঞানী লাইলাদের কাছে একটি বাঁশের বন থেকে এই নতুন প্রজাতির সন্ধান পেয়েছেন।

এর প্রাপ্তিস্থা রি-ভোই জেলা। যা মেঘালয়ের নংখাইলেম বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য সংলগ্ন। ডা. সাইকিয়া জানিয়েছেন, তিনি ২০২০ সালের গ্রীষ্মে এই অঞ্চল থেকে এই প্রজাতির দুটি নমুনা সংগ্রহ করেছিলেন। বিশদ বিশ্লেষণের জন্য গবেষকরা মেঘালয়ের নমুনাগুলিকে প্রাকৃতিক ইতিহাস জাদুঘরে রাখা এই বংশের অধীনে থাকা অন্যান্য সমস্ত প্রজাতির নমুনার একটি বড় সিরিজের সঙ্গে তুলনা করেছেন। তুলনামূলক আলোচনা ও বিশ্লেষণ শেষে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছন যে, মেঘালয়ের নমুনাগুলি প্রকৃতপক্ষে একটি স্বতন্ত্র প্রজাতির প্রতিনিধিত্ব করে। বিজ্ঞানীরা যে রাজ্য থেকে এটি আবিষ্কার করেন তার সম্মানে এবং ২০২২ সালে মেঘালয় রাজ্যের ৫০ তম বার্ষিকী উদযাপনের জন্য এই প্রজাতিটির নামকরণ করেছেন গ্লিসক্রোপাস মেঘালয়নাস।                                       

সাধারণত মেঘালয়ে এটিকে মোটা-থাম্বড ব্যাট বলা হয়। গবেষকরা উল্লেখ করেছেন যে, এই ব্যাট বা বাদুড়টির বুড়ো আঙুল এবং পায়ের তলদেশে সাধারণ মাংসের প্যাড রয়েছে। যা তাদের বাঁশের মসৃণ পৃষ্ঠের উপর দিয়ে চলতে সাহায্য করে। এর আগে চার প্রজাতির পুরু-আঙুলযুক্ত বাদুড়ের বিশ্বব্যাপী পরিচিত হয়েছে। যাদের সবগুলোই দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের। বর্তমান আবিষ্কারটি ভারত থেকে। ঘটনাক্রমে, এই নতুন প্রজাতিটি একই এলাকা থেকে আবিষ্কৃত হয়েছিল যেখানে গত বছর বিজ্ঞানীদের ওই দলটি ভারতে ডিস্ক-ফুটেড বাদুড়ের অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছিলেন।        

এই আবিষ্কারের এক দশকেরও বেশি সময় পর ভারত থেকে একটি নতুন প্রজাতির বাদুড় আবিষ্কার। পাশাপাশি, এই আবিষ্কার মেঘালয়ের জীববৈচিত্র্যের বিপুল ঐশ্বর্যকে তুলে ধরে। যেহেতু নতুন বাদুড়টি আবিষ্কৃত হয়েছে নংখাইলেম ডব্লিউএলএস-এর সংলগ্ন এলাকা থেকে, তাই গবেষকরা সেই এলাকাটি সংরক্ষণের ওপর জোর দিয়েছেন। এই নতুন আবিষ্কারের সঙ্গে ভারত থেকে পরিচিত বাদুড় প্রজাতির মোট সংখ্যা দাঁড়াল ১৩১ টি। এগুলি বিশেষ ধরনের বাদুড়, যা বাঁশের ইন্টারনোডের ভিতরে রোস্ট করার জন্য অভিযোজিত হয়েছে।  তাদের পায়ের আঙ্গুলের গোড়ায় হালকা গোলাপি ডিম্বাকার আকৃতির বুড়ো আঙুলের প্যাড থাকে যা সম্ভবত তাদের মসৃণ পৃষ্ঠতলের বাঁশের ভিতরে বসতে সাহায্য করে। যে এলাকা থেকে নতুন প্রজাতির খবর পাওয়া গেছে ঠিক সেই জায়গা থেকে গত বছর আরেকটি বাঁশ বাদুড়, ডিস্ক-ফুটেড ব্যাট ইউডিস্কোপাস ডেন্টিকুলাসের দুটি নমুনা পাওয়া গেছে। ডানার গঠন বিশ্লেষণ থেকে, এই বাদুড়টিকে 'এজ-স্পেস এরিয়াল ফোরজার' হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ করা যেতে পারে। যার অর্থ তারা গাছপালার মধ্যে থেকে বায়ুবাহিত শিকারকে খায়।       আকৃতিগতভাবে এগুলি ছোট। যার বাহুর দৈর্ঘ্য ৩২-৩৪ মিমি। গায়ের লোম গাঢ় বাদামী। মাথার আকৃতি, কান এবং ট্র্যাগাস সহ সামগ্রিক চেহারাটি ছোট পিপিস্ট্রেলের মত।

ads

Mailing List