মৎস্য বিজ্ঞানীদের সঙ্গে সরাসরি মাছ চাষিদের মত বিনিময় নন্দীগ্রামে, ব্যবস্থা করে দিল মৎস্য দফতর

মৎস্য বিজ্ঞানীদের সঙ্গে সরাসরি মাছ চাষিদের মত বিনিময় নন্দীগ্রামে, ব্যবস্থা করে দিল মৎস্য দফতর
14 Nov 2022, 01:45 PM

মৎস্য বিজ্ঞানীদের সঙ্গে সরাসরি মাছ চাষিদের মত বিনিময় নন্দীগ্রামে, ব্যবস্থা করে দিল মৎস্য দফতর

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: দুই দিনের সফরে মৎস্য গবেষণা কেন্দ্রের ডাইরেক্টর দেশের বিশিষ্ট মৎস্য বিজ্ঞানী ডক্টর বসন্ত কুমার দাস সহ তিনজন মৎস্য বিজ্ঞানী। তাঁদের সঙ্গে সরাসরি মৎস্যচাষিদের কথা বলার সূযোগ করে দিচ্ছে মৎস্য বিভাগ। চাষিরা মাছ চাষ সংক্রান্ত সমস্যার কথা বলছেন, আর বিজ্ঞানীরা তা সমাধান করছেন। মাছের নানা রোগ নিয়ে যেমন আ‌লোচনা হচ্ছে তেমনই আলোচনা হচ্ছে আধুনিক পদ্ধতিতে মাছ চাষ করে কিভাবে দ্রুত আয়ের সম্ভাবনা আরও বাড়ানো যায়। আর এই সেই সূযোগ পেয়ে বেজায় খুশি নন্দীগ্রামের মৎস্যচাষিরা।

হুগলি ও হলদী নদীর কোল ঘেঁষে অবস্থিত নন্দীগ্রাম-১ নম্বর ব্লকের কেন্দেমারী, কাঁটাখালি, সাউদখালি ও গাংরাচরের মৎস্য অবতরন কেন্দ্রে যেমন আছে ধীবর নৌকা মৎস্যজীবীদের নদী-সমুদ্রে মাছ আহরন তেমনি নন্দীগ্রামের বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে আছে ঈষদ নোনা জলের ভেনামী চিংড়ির চাষ ও মিঠে জলের রুই, কাতলা সহ অন্যন্য মাছের চাষ।

এলাকার মৎস্য ক্ষেত্রের সার্বিক উন্নয়নের জন্য ইতিমিধ্যে ব্লক মৎস্য দপ্তর বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করেছে। জেলার সর্বাধিক মৎস্যজীবী ক্রেডিট কার্ড যেমন হয়েছে নন্দীগ্রাম-১ ব্লকে তেমনি মৎস্যজীবীদের দল গঠন করে সরকারি প্রকল্প সমূহ সাধারণ মাছ চাষির মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

মৎস্য ক্ষেত্রের এই অগ্রগতিকে ত্বরান্বিত করতে দেশের অন্যতম মৎস্য গবেষনা কেন্দ্রের ডাইরেকটর সহ মৎস্য বিজ্ঞানীদের সাথে মৎস্যজীবীদের সরাসরি মতবিনিময়ের সুযোগ করে দিয়েছে নন্দীগ্রাম-১ ব্লক মৎস্য বিভাগ।

দুই দিনের সফরে এসেছেন ব্যারাকপুরে অবস্থিত সেন্ট্রাল ইনল্যান্ড ফিশারী রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (কেন্দ্রীয় অভ্যন্তরীণ মৎস্যচাষ গবেষণা কেন্দ্র) ডাইরেক্টর দেশের বিশিষ্ট মৎস্য বিজ্ঞানী ডক্টর বসন্ত কুমার দাস সহ তিনজন মৎস্য বিজ্ঞানী ডক্টর অর্চনা কান্তি দাস, টি চানু ও গবেষকের দল।

নন্দীগ্রাম-১ ব্লকের মৎস্য আধিকারিক সুমন কুমার সাহু এর তত্বাবধানে সিফ্রি গবেষনা কেন্দ্রের ডাইরেকটর ও বিজ্ঞানীদের দল নন্দীগ্রাম এলাকার মৎস্য ক্ষেত্র গুলি ঘুরে দেখেন। নৌকা করে যেমন মৎস্যজীবীদের মাছ ধরার বিষয় গুলি দেখেন, ইলিশ , শুশুক সংরক্ষনে সচেতন করে তেমনি ঈষদ নোনাজলের ভেনামী চাষিদের সাথে চাষের খুটিনাটি বিষয় ও বিকল্প মাছ  চাষ নিয়েও কথা হয়। 

নন্দীগ্রাম-১ ব্লকের মৎস্য সম্প্রসারন আধিকারিক সুমন কুমার সাহু বলেন, “মৎস্য সংক্রান্ত পেশার সাথে যুক্ত মানুষের বৈজ্ঞানিক স্বাক্ষরতা বৃদ্ধির সাথে সাথে পরিকল্পনা মাফিক  মৎস্য ক্ষেত্রের উন্নয়নের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে এতে আর্থ-সামাজিক শ্রী বৃদ্ধি ঘটবে”।

সেন্ট্রাল ইনল্যান্ড ফিশারী রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (কেন্দ্রীয় অভ্যন্তরীণ মৎস্যচাষ গবেষণা কেন্দ্র) ডাইরেক্টর দেশের বিশিষ্ট মৎস্য বিজ্ঞানী ডক্টর বসন্ত কুমার দাস বলেন নন্দীগ্রাম-১ ব্লকের মৎস্য ক্ষেত্র গুলি পরিদর্শন করে আমরা খুব খুশি এবং তার সাথে ব্লক মৎস্য দপ্তরের তৎপরতায় এলাকায় মৎস্যজীবীদের উৎসাহ উদ্দিপনা বিশেষ লক্ষনীয়, যেভাবে দল গঠনের মাধ্যমে মৎস্যজীবিদের প্রশিক্ষিত করা হচ্ছে তা খুব প্রসংশনীয়। 

ব্লক মৎস্য আধিকারিক যেভাবে মৎস্য বিজ্ঞানীদের নিয়ে মাছ চাষিদের সাথে এলাকায় ঘুরলেন কথা বললেন এতে চাষি মহল অত্যন্ত খুশি তাই এলাকায় নীল বিপ্লবের জোয়ার বইতে শুরু করেছে তা নিসন্দেহে বলা যায়।

Mailing List