দলীয় কর্মসূচিতে যাওয়ার আগেই কৃষ্ণনগরে বিজেপি সাংসদকে আটকে দিল পুলিশ, তা নিয়ে তীব্র বাদানুবাদ

দলীয় কর্মসূচিতে যাওয়ার আগেই কৃষ্ণনগরে বিজেপি সাংসদকে আটকে দিল পুলিশ, তা নিয়ে তীব্র বাদানুবাদ
14 Jun 2022, 05:30 PM

দলীয় কর্মসূচিতে যাওয়ার আগেই কৃষ্ণনগরে বিজেপি সাংসদকে আটকে দিল পুলিশ, তা নিয়ে তীব্র বাদানুবাদ

 

কুহেলি দেবনাথ, নদিয়া

 

বহরমপুর এ দলীয় কর্মসূচিতে যাওয়ার পথে রাস্তায় বিজেপি সাংসদকে আটকে দিল পুলিশ। তা পুলিশের সঙ্গে সাংসদের তীব্র বাদানুবাদ হয়। অবশেষে আই সির বিরুদ্ধে জেলা শাসকের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন সাংসদ। ঘটনাটি নদিয়ার কৃষ্ণনগরে। কোতোয়ালি থানার ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কের পিডব্লিউডি মোড়ে।

বিজেপির দাবি, এদিন রানাঘাট কেন্দ্রের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার বহরমপুরের একটি দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন। সেই খবর আগে থেকেই প্রশাসনের কাছে ছিল। সেই কারণেই কৃষ্ণনগর কোতোয়ালি থানার ওসির নেতৃত্বে পুলিশ কৃষ্ণনগর পিডব্লিউডি মোড়ে দাঁড়িয়ে ছিল। যখন বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার এর গাড়ি সেখান দিয়ে যাচ্ছিল তখনই পুলিশ রাস্তার উপর আড়াআড়ি ভাবে দাঁড়িয়ে তার গাড়ি আটকে দেয়। দীর্ঘক্ষন পুলিশের সঙ্গে সাংসদের বাদানুবাদ চলতে থাকে। যার জেরে জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে।

সাংসদ জগন্নাথ সরকারের দাবি, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে তাঁকে আটকে দেওয়া হয়েছে। পুলিশের কোনো এক্তিয়ার একজন সাংসদের এভাবে রাস্তা আটকানোর। এরপর তিনি কৃষ্ণনগরে জেলাশাসকের দপ্তরে আসেন। সেখানে জেলা শাসকের কাছে কৃষ্ণনগর থানার আইসি রক্তিম চ্যাটার্জির বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ জমা দেন। যদিও প্রশাসনের তরফ থেকে দাবি করা হয়, নূপুর শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে নাকাশীপাড়া থানা এলাকার ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। তারা বলেন জগন্নাথ সরকার সেখানেই যাচ্ছিলেন। সেই কারণেই তাঁর রাস্তা আটকানো হয়েছে। উনি গেলে উত্তেজনা ছড়াতে পারতো।

ads

Mailing List