হাওড়াতেও হয় বাউল মেলা, কারা ধরে রেখেছেন এই ঘরানা

হাওড়াতেও হয় বাউল মেলা, কারা ধরে রেখেছেন এই ঘরানা
29 Nov 2022, 09:43 PM

হাওড়াতেও হয় বাউল মেলা, কারা ধরে রেখেছেন এই ঘরানা

 

সুলেখা চক্রবর্তী, হাওড়া

 

বাউল-শব্দের অর্থ বাতুল। অর্থাৎ এলোমেলো। সমাজে এমন বেশ কিছু মানুষ আছে চিরকালই রয়েছে -যাদের জীবন এলোমেলো। মন এলোমেলো-পাগলপারা। কোন বিধিনিষেধ না এই মানুষরাই মনে আনন্দে গেয়ে ওঠেন হাজারো গান। যার পরবর্তী সময়ে লিপিবদ্ধ হয়ে সুরে ছন্দে‌ হয়ে ওঠে গান।

যাকে বাউল গান বলা হয়। কিন্তু এই গান অতীতে মানুষের কাছে গ্রহনযোগ্য হলে ও এখন আধুনিক ও পাশ্চাত্য সংগীতের দাপটে হারিয়ে যেতে বসেছে। সেই সঙ্গে হারিয়ে যাচ্ছে ভারতীয় সংগীত ও সংস্কৃতির একটি মুগ্ধকর উপাদান। পাশ্চাত্য ঘরানা যখন ধীরে ধীরে গ্রাস করে নিচ্ছে ভারতীয় লোক সংগীত তখন হাওড়ার বাগনানের যুবক শিল্পী সুবীর সিনহা একক লড়াই চালাচ্ছেন। নিজে সংগীত হিসাবে যেমন বেছে নিয়েছেন বাউলকে তেমনি নিজের স্ত্রী ও দুই সন্তান কে ও উৎসাহ  দিয়ে চলেছেন বাউল সংগীত বিষয়ে। জানা গিয়েছে সারা বছর ধরে একটু একটু করে অর্থ জমিয়ে বছরের শেষে আয়োজন করেন বাউল মেলার।

কেন্দুলীর জয়দেবের মেলার মতোই হাওড়ার বাগনানের কালিকাপুরে ফি বছর বসে এই মেলা । জেলা ছাড়িয়ে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হাজির হন বাউল শিল্পীরা। দামোদর নদের তীরে গাছের ছায়ায় হয় এই অনুষ্ঠান। কিন্তু কেন এই ধরনের মেলার আয়োজন?-এই প্রশ্নের উত্তরে সুবীর বাবু জানান," গ্রামীণ এলাকায় বহু নবীন বাউল শিল্পী আছেন যারা আর্থিক দিক থেকে ও আক্ষরিক অর্থেই বাউল।তাদের প্রতিভা তুলে ধরা যেমন উদ্দেশ্য তেমনি হারিয়ে যাওয়া বাউল গান ফিরিয়ে আনা ও উদ্দেশ্য। এই গানকে আরো বেশি করে মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া ও উদ্দেশ্য।"

Mailing List