অস্থায়ী কর্মীদের সাহায্যের জন্য টাকা তুলল আই আই টি খড়্গপুরের প্রাক্তনীরা

 অস্থায়ী কর্মীদের সাহায্যের জন্য টাকা তুলল আই আই টি খড়্গপুরের প্রাক্তনীরা
16 Apr 2021, 08:58 PM

 অস্থায়ী কর্মীদের সাহায্যের জন্য টাকা তুলল আই আই টি খড়্গপুরের প্রাক্তনীরা

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন, খড়্গপুর: ভারতের প্রাচীনতম আই আই টি খড়্গপুরে কাজ করেন যারা তারা এখন কোভিডের কারণে আর্থিক সংকটে ভুগছেন। তাদের সাহায্য করার করার জন্য এবার এগিয়ে এসেছে এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তনীরা। যারা এখানে অস্থায়ী কর্মী, যেমন, ধোপা, যারা পরিচারিকার কাজ করে, হোস্টেলের কর্মী, রিকশা চালক, তাদের সাহায্য করার জন্যই এই টাকা তোলা হয়েছে।  

গত বছর কোভিড প্রকোপ বাড়ার পরে সমস্যার মধ্যে পড়েন এই সব অস্থায়ী কর্মীরাও।  তাদের সাহায্য করার কথা ভুলে যান নি এই প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তনীরা। বিশেষ করে যারা আমেরিকাতে আছে তারা।  তারাই একটি সংগঠন তৈরি করে এবং এদের সহায়তা পেয়ে আইআইটি খড়্গপুর ক্যাম্পাসে এবং এর আশেপাশে যারা বাস করেন এবং জীবনযাপন করার জন্য যারা এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওপরে নির্ভরশীল এমন প্রায় পঞ্চাশ হাজার মানুষকে সাহায্য করা হয়েছে বলে জানিয়েছে আই আই টি খড়্গপুর।

কোভিডের কারণে গত বছরের এপ্রিল মাস থেকে সমস্যার মধ্যে পড়েন এই সব অস্থায়ী কর্মীরা। তারপরেই তাদের সাহায্য করার জন্য উদ্যোগ নেয় আমেরিকাতে থাকা এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তনীরা। প্রায় দেড় হাজার জন।  এই জন্য আমেরিকাতে তারা যে সংগঠন করেছে তার সভাপতি রনবীর গুপ্তা জানিয়েছেন, “যারা মাস মাইনে পান না, অস্থায়ী কর্মী হিসাবে কাজ করেন তাদের জন্য আমরাও উদ্বিগ্ন। সেই জন্য আমরা প্রায় ৫০০ হাজার ডলার তুলে দশ হাজারের বেশি মানুষকে সহায়তা পাঠিয়েছি। যাতে তারা এই পরিস্থিতিতে কোন সমস্যার মধ্যে না পড়েন তার জন্যই আমরা এটা করেছি। কারণ আমরা যখন সেখানে পড়া করেছি দেখেছি তারাও আমাদের  পড়ার ক্ষেত্রে, সেখানে থাকার ক্ষেত্রে একটা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে।” তারা মনে করে যে এই ভাবে সবার এগিয়ে আসা উচিত।

এই আইআইটির ডিরেক্টর বি কে তেওয়ারি বলেন, “এই সব অস্থায়ী কর্মীরা শুধু মাত্র এই প্রতিষ্ঠানের ওপর নির্ভর করে তাই নয়, আমরাও যারা ক্যাম্পাসে থাকি তারাও  নানা ভাবে তাদের ওপরে নির্ভর করি। তাই তাদের সাহায্য করা আমাদের সকলের কর্তব্য।” এই অস্থায়ী কর্মীদের আবার মে মাসে সাহায্য করা হবে এবং আরও যারা প্রাক্তনী আছে তারাও যাতে এদের সাহায্য করতে এগিয়ে আসে তাদের কাছেও আবেদন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে আইআইটি খড়্গপুর।

Mailing List