বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে জুয়াতে উৎসাহ দেওয়ার অভিযোগ!

বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে জুয়াতে উৎসাহ দেওয়ার অভিযোগ!
01 Aug 2020, 11:23 AM

বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে জুয়াতে উৎসাহ দেওয়ার অভিযোগ!

আনফোল্ড বাংলা স্পোর্টস ডেস্ক: এবার যেন একেবারে বড়সড় গাড্ডায় পড়েছেন ভারতের ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। মাদ্রাজ হাইকোর্টে তাঁকে গ্রেফতারের দাবিতে বেশ বড়সড় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে শুধু বিরাটই নন, অভিনেত্রী তামান্না ভাটিয়ার গ্রেফতারি চেয়ে পিটিশন জমা দিলেন চেন্নাইয়ের এক আইনজীবী।

খবর প্রকাশ্যে আসার সাথে সাথেই বিরাট অনুরাগীরা প্রশ্ন শুরু করেছেন, বিরাটের বিরুদ্ধে কি কি অভিযোগ আনা হয়েছে? তারই সঙ্গে তাঁদের প্রশ্ন, অভিযোগগুলি যে ভিত্তিহীন নয়, এর প্রমান কোথায়?

তবে সূত্রের খবর, অনলাইন জুয়াকে প্রচার করার অভিযোগ উঠেছে ভারত অধিনায়কের বিরুদ্ধে। এছাড়াও অভিযোগ উঠেছে দেশের যুব সমাজকে প্রতিনিয়ত ভুল পথে চালনা করার চেষ্টা চালাচ্ছেন বিরাট। বিরাটের মতো সেলেব্রিটি এই অনলাইন গেমিং অ্যাপের প্রচার চালালে সেটি বিরাট অনুরাগীদের অনেক বেশি ভালো লাগবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর এতেই শুরু হয়েছে একের পর এক বিপত্তি।

চেন্নাইয়ের ওই আইনজীবীর পিটিশনে স্পষ্ট বলা হয়েছে, মাদ্রাজ হাইকোর্ট ইতিমধ্যেই অনলাইন জুয়ার অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করুক। অনলাইন জুয়া কোম্পানিগুলি নিজেদের ব্যাবসার লাভের আশায় বিরাট, তামান্নার মতো তারকাদের কাছে ছুটছেন। আর বিরাটরা এই অ্যাপের হয়ে কাজ করলেই, সেই অ্যাপকে নিজেদের প্রথম পছন্দ হিসাবে বেছে নিচ্ছেন দেশের যুবকেরা। তাই তিনি দাবি করেছেন। যত দ্রুত সম্ভব  বিরাট এবং তামান্নাকে গ্রেফতার করা উচিত।

এর সাথেই আইনজীবী সূর্যপ্রকাশম তুলে ধরেছেন এক তরুনের আত্মহত্যার ঘটনা। কয়েকদিন আগেই অনলাইন জুয়ায় অনেক টাকা দেনা হওয়ায় এই তরুন আত্মহত্যা করেছেন। তাঁর মতে, এই ভাবে চলতে থাকলে, শুধু ওই তরুণই নয়, হাজার হাজার যুবক আত্মহত্যাকেই বেছে নেবেন। তাই দ্রুত মাদ্রাজ হাইকোর্টের কাছে ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জি জানিয়েছেন তিনি।

এক্ষেত্রে অবশ্য বিরাট ও তামান্নার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা গ্রহণ করেছে মাদ্রাজ হাইকোর্ট। আগামী মঙ্গলবার এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন স্থির করা হয়েছে। এখন শেষ পর্যন্ত এই গুরুত্বপূর্ণ মামলায় কি সিদ্ধান্ত আসে, সেই দিকেই তাকিয়ে সকলে।

Mailing List