একটি পুরাণভিত্তিক ধর্মীয় ধারাবাহিক রচনা, ‘আমিই সে’/ পঞ্চম পর্ব

একটি পুরাণভিত্তিক ধর্মীয় ধারাবাহিক রচনা, ‘আমিই সে’/ পঞ্চম পর্ব
20 Jun 2021, 02:25 PM

‘আমিই সে’

(একটি পুরাণভিত্তিক ধর্মীয় ধারাবাহিক রচনা)

সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

 

পঞ্চম পর্ব

 

"ভবঃ শর্ত রুদ্রঃ পশুপতিরথোগ্রঃ সহমহাং ---

   স্তথা ভীমেশানাবিতি যদভিধানষ্টকমিদম্। "

 

'হে দেবতা  ভব, শর্ব্ব, রুদ্র, পশুপতি, উগ্র, মহাদেব, ভীমেশানাবিতি, ঈশান--- এই আটটি নামে প্রত্যেকটির অর্থ প্রকাশের জন্য তুমি সদা প্রস্তুত ও সচেষ্ট। আমি তোমার সেই আনন্দ-স্বরূপ ও আশ্রয়-স্বরূপ মহান মহানুভবতার কাছে নত মস্তকে প্রণাম জানাই।'

 

এই আটটি রূপের অধিকারী হলেন স্বয়ং শিব। ওঁনাকে আমরা ঐ আটটি বিশেষ নামে অভিহিত করে থাকি।

ব্রহ্মের অস্তিত্ব সর্বত্র, এবং ব্রহ্মাণ্ডে সদাসর্বদা তিনি বিদ্যমান থাকেন শাশ্বত পুরুষ হ'য়ে--- তাই তিনি 'ভব'।

সকল বস্তুকে তিনি সময়কালে পাশ করেন, তাই তিনি 'শর্ব্ব '।

চিদচিতের নিয়ামক (নিয়ন্ত্রা) এবং সংসারের শোক দূর করেন বলে তিনি 'রুদ্র'।

 

এ বিশ্ব সংসারের সব বস্তু তাঁর তেজে উদ্ভাসিত হয় বলে এবং কেউই তাঁকে পরাভূত করতে পারে না বলেই তিনি 'উগ্র'। ভীষণতা ও ভয়ের আধার বলে তিনি 'ভীম'। সকল প্রাণীদের, তথা পশুদের ও সর্ব প্রকার পাশ-এর প্রভু তিনি, তাই 'পশুপতি '। জগৎ-চরাচরের, বিশ্ব-ব্রহ্মাণ্ডের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বলে তিনি 'মহাদেব'। তিনি নিরুপারিধ, পরমেশ্বর-রূপী পরমৈশ্বরর্যবান, তাই তিনি 'ঈশান'।

 

পূরাণ-পুরুষ ৠষি মার্কন্ডেয় শিবের এই আটটি বিশেষ নাম নিয়ে ওঁনার অষ্টমূর্তির একটি প্রণাম-মন্ত্র রচনা করেছেন। তা হ'ল নিম্ন রূপ-:

" ওঁ শর্ব্বায় ক্ষিতি- মূর্তয়ে নমঃ।।

ওঁ ভাবায় জল-মূর্তয়ে নমঃ ।।

ওঁ রুদ্রায় অগ্নি-মূর্তয়ে নমঃ ।।

ওঁ উগ্রায় বায়ু-মূর্তয়ে নমঃ ।।

ওঁ ভীমায় আকাশ-মূর্তয়ে নমঃ ।।

ওঁ পশুপতয়ে যজমান মূর্তয়ে নমঃ ।।

ওঁ মহাদেবায় সোমমূর্তয়ে নমঃ ।।

ওঁ ঈশানায় সূর্য-মূর্তয়ে নমঃ ।।"

 

(চলবে..)

ads

Mailing List