৫০০ গ্রাম সোনা, তিনটি বাড়ি, আর কতগুলি মামলা আছে হুগলির সাংসদের বিরুদ্ধে?

৫০০ গ্রাম সোনা, তিনটি বাড়ি, আর কতগুলি মামলা আছে হুগলির সাংসদের বিরুদ্ধে?
07 Apr 2021, 02:26 PM

৫০০ গ্রাম সোনা, তিনটি বাড়ি, আর কতগুলি মামলা আছে হুগলির সাংসদের বিরুদ্ধে?

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন:  হুগলি কেন্দ্রের সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। তিনি অভিনেত্রী।  অনেকগুলি সিনেমাতে অভিনয় করেছেন তিনি।  তাঁর তিনি থাকেন কলকাতায়। কামারহাটি কেন্দ্রের ভোটার। আর এবার তাঁকেই হুগলি জেলার চুঁচুড়া কেন্দ্রে বিধানসভার প্রার্থী করেছে বিজেপি। এই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ ১০ তারিখ,  চতুর্থ দফায়। তিনি এখন অন্য কেন্দ্রের পাশাপাশি নিজের বিধানসভা কেন্দ্রেও প্রচারে ব্যস্ত। তাঁর নামে আছে তিনটি বাড়ি, আছে একাধিক গাড়ি। আছে ৫০০ গ্রাম সোনা।  আর তাঁর বিরুদ্ধে আছে অনেকগুলি মামলা।

৪৭ বছর বয়সী লকেট, অভিনয় করেছেন গুরু, চাঁদের বাড়ি, পরাণ যায় জ্বলিয়া রে,  খোকাবাবু,  লে হালুয়া লে, বাই বাই ব্যাংকক, ছ-এ ছুটি, গোড়ায় গণ্ডগোল সহ অনেক সিনেমাতে। আগে ছিলেন তৃণমূলের সাথে। কিন্তু ২০১৫ সালে  তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। গত লোকসভা নির্বাচনে তাঁকে হুগলি কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়। জিতে সাংসদ হন তিনি। এবার তাঁকেই চুঁচুড়া বিধানসভা কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী করেছে।

১৯৯৭ সালে কলকাতার যোগমায়াদেবী কলেজ থেকে স্নাতক হন লকেট। তাঁর বাবা অনিল চট্টোপাধ্যায় ছিলেন দক্ষিণেশ্বর কালী মন্দিরের পুরোহিত।  তিনি জানিয়েছেন যে অভিনয় তাঁর পেশা এবং তাঁর স্বামী প্রসেনজিৎ ভট্টাচার্য চাকরি করেন।

যাকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘সারদার গলার লকেট’ বলে কটাক্ষ করেছেন সেই লকেট  চট্টোপাধ্যায় তাঁর নির্বাচনী হলফনামাতে জানিয়েছেন যে ২০১৯-২০ সালে তাঁর আয় হয়েছে ৪ লক্ষ ৮৬ হাজার ৬৫৪ টাকা। তাঁর হাতে নগদ আছে ৩৩ হাজার ৪৫২ টাকা। তাঁর নামে আছে দুটি গাড়ি। তার মধ্যে একটির দাম  ১৫ লক্ষ টাকা, তাঁর আছে ৫০০ গ্রাম সোনা, যার মূল্য ২২ লক্ষ টাকা। লকেট জানিয়েছেন যে তাঁর নামে যে অস্থাবর সম্পত্তি আছে আছে তার পরিমাণ ১ কোটি ৬৯ লক্ষ ৬৬ হাজার ৭৫ টাকা ৯৩ পয়সা। এছাড়াও সোনারপুর এলাকাতে তাঁর নামে দুটি ফ্ল্যাট এবং ইএম বাইপাসে তাঁর নামে একটি ফ্ল্যাট আছে।  সব মিলিয়ে তাঁর নামে স্থাবর সম্পত্তি আছে ১ কোটি ৭৯ লক্ষ টাকার।

তিনি জানিয়েছেন যে তাঁর স্বামীর কোনও সোনা নেই।  তবে একটি গাড়ি আছে। যার দাম ৩ লক্ষ ২০ হাজার টাকা।  ২০১৯-২০ সালে তাঁর স্বামীর আয় হয়েছে ১৭ লক্ষ ৬৪ হাজার ৩৩১ টাকা এবং নগদ আছে ২৭ হাজার টাকা।  প্রসেনজিৎ ভট্টাচার্যর নামে অস্থাবর সম্পত্তি আছে ৭৭ লক্ষ ৫ হাজার ৮৩৬ টাকা এবং স্থাবর সম্পত্তি আছে ২৫ লক্ষ টাকার বলে জানিয়েছেন লকেট।  তাঁর ছেলে প্রেমের নামে কোন সম্পত্তি, টাকা কিছুই নেই বলেও জানান তিনি। 

লকেট জানিয়েছেন যে তাঁর নামে আছে ১৭ টি মামলা।  তবে এখন পর্যন্ত কোনও মামলাতে তিনি দোষী সাব্যস্ত হন নি।  তাঁর নামে মামলা আছে জোড়াসাঁকো, ভদ্রেশ্বর, চন্দননগর, মহম্মদ বাজার, ইংরেজ বাজার, দিনহাটা সহ বিভিন্ন থানাতে। তাঁর নামে ১৮২, ৪৬৯, ৫০৬, ১২০ (বি), ১৪৭, ১৪৮, ১৪৯, ৩০৭, ৩২৫, ৩২৬ সহ ভারতীয় দন্ডবিধির আরও বিভিন্ন ধারায় মামলা আছে বলে জানিয়েছেন লকেট।

ads

Mailing List