আসানসোলের নিয়ামতপুরের  নিষিদ্ধপল্লি থেকে উদ্ধার  ৩৫ নাবালিকা

আসানসোলের নিয়ামতপুরের  নিষিদ্ধপল্লি থেকে উদ্ধার  ৩৫ নাবালিকা
05 Aug 2021, 01:23 PM

আসানসোলের নিয়ামতপুরের  নিষিদ্ধপল্লি থেকে উদ্ধার  ৩৫ নাবালিকা

 

আনফোল্ড বাংলা প্রতিবেদন: রাজ্যের বিভিন্ন নিষিদ্ধপল্লিতে জোর করে যৌন কাজে নামানো হয় নাবালিকাদেরও। আসানসোলের নিয়ামতপুরের নিষিদ্ধপল্লিতেও নাবালিকাদের নিয়ে আসা হয়েছে এবং জোর করে তাদের যৌন ব্যবস্যায় নামানো বলে  খবর পাওয়ার পরেই সেখানে অভিযান চালাল পুলিশ।।   আসানসোল পুলিশ কমিশনারেটের আধিকারিকরা সেখানে অভিযান চালায়। তাদের সঙ্গে ছিলেন পশ্চিম বর্ধমান  জেলার প্রশাসনের আধিকারিকরাও।   এই অভিযান চালিয়ে আসানসোলের নিয়ামতপুরের নিষিদ্ধপল্লি থেকে ৩৫ জন নাবালিকাকে উদ্ধার করেছে পুলিস ও জেলা প্রশাসন।। 

জানা গিয়েছে, রাজ্য শিশু ও মহিলা কমিশনে গোপন সূত্রে খবর যায় যে নিয়ামতপুরের ওই নিষিদ্ধ পল্লিতে অনেকজন নাবালিকা রয়েছে। তাদের দিয়ে জোর করেই দেহব্যবসা করানো হচ্ছে। সেই খবর পাওয়ার পরই ওই কমিশনের চেয়ারম্যান অন্যন্যা চক্রবর্তী চট্টোপাধ্যায়, পশ্চিম বর্ধমানের জেলা শাসক বিভু গোয়েল, পুলিশ কমিশনার অজয় ঠাকুর, মহকুমা শাসক অভিজ্ঞান পাঞ্জা-সহ অন্যান্য আধিকারিকদের নিয়ে অভিযান চালানো হয়। 

ওই এলাকা সেখান থেকে প্রায় ৪৭ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে।

অনন্যা চক্রবর্তী চট্টোপাধ্যায় জানান,  যাদের উদ্ধার করা হয়েছে তাদের মধ্যে বেশিরভাগই নাবালিকা। এরা অন্য রাজ্য থেকে এসেছে কি না সেটা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করার পরই জানা যাবে।

 যেসব নাবালিকাদের ওই নিষিদ্ধ পল্লি থেকে উদ্ধার করা হয়েছে তাদেরকে  চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির কাস্টডিতে দিয়ে দেওয়া হবে, বলেই  জানা গিয়েছে। এরপর তাদের চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির হোমে রাখার বন্দোবস্ত করা হবে। সেখানেই আপাতত রাখা হবে এই নাবালিকাদের।

কীভাবে  এই নাবালিকারা এই এলাকায় এসেছে, তাদের বাড়ি কোথায়, আসল পরিচয় কী,  এই  সব প্রশ্নের উত্তর পেতে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে জানা হবে।

পশ্চিম বর্ধমানের  জেলা শাসক বিভু গোয়েল জানান,  গোপন সুত্রে খবর পাওয়া যায় এই নিষিদ্ধপল্লিতে বেশ কয়েক নাবালিকা রয়েছে। এরপরই পুলিশ ও প্রশাসনের যৌথ অভিযান চালানো হয়েছে। আইন অনুযায়ী সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 

এলাকার পুলিশ কমিশনার অজয় ঠাকুর জানান, সেখানে আরও কেউ আটক আছে কি না তা দেখা হচ্ছে।

 

ads

Mailing List